অক্লান্ত পরিশ্রম সফলতা এনে দিয়েছে জাহাঙ্গীরের

সারাবাংলা

সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি:
পরিশ্রম সৌভাগ্যের প্রসূতি, মেধা, পরিশ্রম এবং সঠিক পরিকল্পনার সমন্বয়ে সফলতার মুখ দেখেছেন জাহাঙ্গীর আলম। তিন সন্তানের জনক তিনি। মাদ্রাসা থেকে দাখিল, আলিম পাশ এবং দায়রা হাদিস পাশ করে ও সমাজে টিক থাকার লড়াইয়ে জাহাঙ্গীর একটি আলোকিত নাম। প্রথমত ৫০ হাজার টাকায় মুড়ি প্যাকেটজাত ব্যবসা শুরু করেছিলেন। তারপর ২০০৯ সালে কয়েকজন বন্ধু নিয়ে গড়ে তু্েলন সততা সমিতি। পরবর্তীতে সমিতিটি সমবায় অধিদপ্তর থেকে নিবন্ধন প্রাপ্ত হয়। বর্তমানে সমিতিতে ৭ জন বেকারের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে। পাশাপাশি ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রমের মাধ্যমে ৩০০ সদস্য সৃষ্টি হয়েছে। সমিতি ও একটি লাভজনক ব্যবসায় মুনাফা অর্জন করছে। উপজেলা পর্যায় কয়েকবার তাঁর কার্যক্রমে পুরস্কৃত করেছে সমবায় অধিদপ্তর। জাহাঙ্গীর আলম ২০১৭ সালে গড়ে তুলেন ডেইরি খামার। মাত্র ৫ লক্ষ টাকা দিয়ে শুরু করেছিলেন গরুর খামার, বর্তমানে তাঁর খামারে রয়েছে প্রায় ৫০ লক্ষ টাকার গরু। প্রতিনিয়ত গরু ক্রয় বিক্রয় করে সফল ব্যবসায়ী হিসেবে নাম লিখেছেন তিনি। সিংড়া পৌর এলাকার দানবীর আব্দুল গফুরের লিজকৃত ৫৫ শতাংশ জমিতে গড়ে তুলেছেন খামার। নাটোরের সিংড়া উপজেলার ছাতারদিঘী ইউনিয়নের কুমিড়া গ্রামের শামসুর রহমানের পুত্র জাহাঙ্গীর আলম। পিতা একজন সামান্য কৃষক ছিলেন। ২ ভাই ৬ বোনের মধ্য সে ৫ম। ঐকান্তিক পরিশ্রম, মেধার সমন্বয়ে খুব অল্প সময়ে সফল মানুষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত জাহাঙ্গির আলম। এ প্রতিনিধির সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, মহান আল্লাহর রহমতে দ্রুত সময়ে পরিশ্রম করে সফলতার মুখ দেখিয়াছি। এজন্য তিনি যাদের সহযোগিতা, পরামর্শ পেয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *