অনলাইনে প্রেম করে বিয়ে, জেনে নিন সামনে কি বিপদ!

লাইফ স্টাইল

ডেস্ক রিপোর্ট: অনলাইনে পরিচয় হওয়ার পর বিয়ে। অনেকের সম্পর্কই বৈবাহিক পরিণতি পেয়েছে এভাবে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের ম্যারেজ ফাউন্ডেশনের একটি সমীক্ষায় উঠে এসেছে এক অন্যরকম তথ্য। সেখানে বলা হচ্ছে অনলাইনে পরিচয়ের পর যাদের বিয়ে হয়েছে, তাদের মধ্যে বিচ্ছেদের ঝুঁকি অনেক।

বিয়ের প্রথম তিন বছরে এই বিচ্ছেদের সম্ভাবনা ১২ শতাংশ। অন্যদিকে যারা পরিবার, আত্মীয় বা বন্ধুর সূত্রে পরিচিত হয়েছেন, তাদের বিচ্ছেদের সম্ভাবনা মাত্র দুই শতাংশ। বিয়ের সাত বছর পর এই অনলাইনে আলাপ হওয়ার পর বিয়ে করা দম্পতির বিচ্ছেদের সম্ভাবনা বেড়ে দাঁড়ায় ১৭ শতাংশ, বাকি ক্ষেত্রে এই সম্ভাবনা ১০ শতাংশ।

এ সমীক্ষায় মোট দুই হাজার দম্পতির কাছে পৌঁছেছিলেন সমীক্ষকরা। যাদের প্রত্যেকেরই বয়স ৩০ বছরের উপরে। তাদের প্রশ্ন করা হয়েছিল, ঠিক কোথায় তারা তাদের স্ত্রীয়ের সঙ্গে প্রথম দেখা করেছিলেন। সেখানে দেখা যায়, শেষ দু’বছরে যে যুগলের বিয়ে হয়েছে, তাদের ৩২ শতাংশের প্রথম আলাপ হয়েছে কোনও ডেটিং অ্যাপ বা অন্য কোনও অ্যাপের মাধ্যমে। ১৯৯০ এর দশকে বিবাহিতদের মধ্যে যে পরিমাণ ছিল মাত্র এক শতাংশ, আর শূন্যের দশকে বিবাহিতদের মধ্যে মাত্র সাত শতাংশ।

পাশাপাশি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, অনলাইনে সাক্ষাৎ হওয়া যুগলদের ক্ষেত্রে বিচ্ছেদের সম্ভাবনা বেশি থাকে, এমনই নয়। ১০ বছরের বেশি বয়সী বিবাহিতদের মধ্যে সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গিয়েছে, যে যুগলদের কর্মক্ষেত্রে আলাপ হওয়ার পর বিয়ে হয়েছে, তাদের মধ্যে ২৪ শতাংশকে বিচ্ছেদের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে। সেখানে অনলাইনে আলাপ হওয়ায় যুগলদের মধ্যে বিচ্ছেদের পরিমাণ ২০ শতাংশ।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, অনলাইনে আলাপ হওয়া যুগলদের বিচ্ছেদের মুখে পড়ার কারণ আসলে এরা প্রাথমিক ভাবে একে অপরের ‘অপরিচিত’। তারা বলেছেন, যাদের নিজেদের মধ্যে পারিবারিক সূত্রে বা বন্ধু বৃত্তের সূত্রে কোনও যোগ নেই, তারা একে অপরের অভ্যাস ও বিভিন্ন দিক সম্পর্কে স্পষ্ট জানতে পারেন না। তাদের একেবারে প্রথম থেকে শুরু করতে হয়। তাতে সমস্যা বাড়তে থাকে। তবে বিচ্ছেদের সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি থাকে প্রথম তিন বছরের মধ্যে। পরের পাঁচ, সাত ও ১০ বছরের ক্ষেত্রে এ বিচ্ছেদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য নয়। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *