অনিয়ম-দুর্নীতির পাহাড়সম অভিযোগ সাতকানিয়ার পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে

সারাবাংলা

রাজীব রাহুল, চট্রগ্রাম প্রতিনিধি : ক্ষমতার অপব্যবহার কওে অনিয়ম – দুর্নীতির মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতসহ পাহাড়সম অভিযোগ রয়েছে সাতকানিয়া পৌরসভার মেয়র মো. জোবায়ের এর বিরুদ্ধে।

স্থানীয় মো. মহিউদ্দিন নামের একজনের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে এসব অপরাধের ব্যাখ্যা চেয়ে চেয়ে গত ১১ নভেম্বর পত্র পাঠিয়েছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।
জানা যায় সাতকানিয়ার পৌরসভার ৩ নং সতিপাড়া ওয়ার্ডের মহিউদ্দিন সুনির্দিষ্ট তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন পূর্বক মেয়র মোহাম্মদ জোবায়েরের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতা ও ক্ষমতার অপব্যহার করে নানা অনিয়ম ও অর্থ আত্মসাতের ১৭টি অভিযোগ উল্লেখ করে ১০ অক্টোবর স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলামের বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেন।

স্থানীয় সাংসদ প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীর সুপারিশকৃত সেই অভিযোগটি আমলে নিয়ে গত ২৭ অক্টোবর সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিবকে জোবায়েরের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন।

সেই মোতাবেক গত ১১ নভেম্বর সাতকানিয়া পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ জোবায়েরের বরাবর তাঁর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সমূহের ব্যাখ্যা চেয়ে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোহাম্মদ ফারুক হোসেন স্বাক্ষরিত পত্র প্রেরণ করা হয়।

সাতকানিয়া পৌরবাসী মহিউদ্দিনের আনীত অভিযোগ গুলোর মধ্যে রয়েছে নিয়ম-নীতি অমান্য করে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন ছাড়া  ‘আলোকিত কলেজ ভবন’ নির্মাণের নামে টেন্ডার বিহীন নিজের লোক দিয়ে সামান্য কাজ করে তিনি ব্যাংকের মাধ্যমে ৬ লাখ টাকা ঘুষ গ্রহণ করেছেন। পৌরসভার নকশা অনুমোদনের নামে মন্ত্রণালয়ের কোন সিদ্ধান্ত ছাড়া ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী বিদ্যুৎ হেলপার আবু বক্করের মাধ্যমে জানুয়ারী ১৯ হইতে জুন ২০২০ সাল পর্যন্ত প্রায় ১০০টি নকশার কাজে প্রায় ২৫-৩০ লক্ষ টাকা আত্মসাত করা ।

নিয়ম বহির্ভুতভাবে দেড় বৎসরের অগ্রীম ভাতা বাবদ ৭ লাখ ২০ হাজার টাকা উত্তোলন করেছেন একইভাবে কাউন্সিলরদেরও অগ্রিম সম্মানি দিয়েছেন, পৌরসভার কিছু ক্রয় ও সরবরাহ টেন্ডারের মাধ্যমে না করে বিশেষ সুবিধা ভোগ করে নিম্নমানের সিসি টিভি স্থাপন করে কয়েক দফায় ৭ লাখ টাকা  আত্মসাত করা হয়েছে।

ক্ষমতার অপব্যবহার করে কোন বিল ভাউচার হিসাব শাখায় জমা না দিয়ে নিজের ব্যক্তিগত  গাড়ির জ্বালানী বাবদ ৫ লাখ ৭ হাজার ৬ ছয়শ ৬০ টাকা উত্তোলন করেছেন এবং উক্ত গাড়িটি মেরামতের নামে বিভিন্ন সময়ে পৌরসভার প্রায় ১০ লাখ টাকা খরচ দেখিয়েছেন।

২০১৬ সাল হইতে ২০২০ সাল পর্যন্ত উন্নয়ন কাজের বিপরীতে কোন আয়কর ও ভ্যাট সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে নিজে আত্মসাত করেছেন একই সময়ে টিআর ও কাবিখা কর্মসূচির বরাদ্দকৃত অর্থ মেয়র এবং কাউন্সিলর মিলে ৩০-৩৫ লক্ষ টাকা আত্মসাত করেছেন। বিভিন্ন সময় প্রিন্টিং এর কাজ না করেও নিজের মালিকানাধিন শব্দ মেলা নামে এক প্রিন্টিং প্রতিষ্ঠানের নামে  ৮-১০ লক্ষ টাকা উত্তোলন করেছেন।

মেয়র ও জামায়াত নেতা ডালিমের  যৌথ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পৌরসভার ২টি ড্রাম্প ট্রাক দীর্ঘদিন ধরে ভাড়া ছাড়া  ব্যবহার করে  পৌরসভার প্রায় ৮-১০ লক্ষ টাকা আত্মসাত করেছেন। পৌরসভার প্রকৌশল শাখার সাথে কোন রকম সমন্বয় ও ফাইল অনুমোদন ছাড়াই রোড রোলারের ভাড়ার টাকা মেয়র নিজে সংগ্রহ করে পৌর তহবিলে জমা না দিয়ে অবৈধভাবে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাত করেছেন, নামে বেনামে আর্থিক সাহায্য বাবদ প্রায় ১০ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

আর্থিক সাহায্যেরে কথা বলে যাদেরকে টাকা দিয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন পরবর্তীতে খরব নিয়ে দেখা গেছে অনেকে টাকা পায়নি। তথ্য গোপন করে নিজের অপকর্ম করার সুবিধার্থে পৌর সচিব পদে নিজের বোনের মেয়েকে নিয়োগ দিয়েছেন। নিয়োগ দেওয়ার সময় মোছাম্মৎ আইভীন আক্তার পৌর সচিবের আপন বোনের মেয়ে জেনেও মেয়র বিষয়টি গোপন করেছেন।

দেশে করোনা মহামারীর সময় প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় হতে  পৌরসভার সদ্য নিয়োগকৃত চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী বিদ্যুৎ হেলপার আবু বক্করকে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন বিহীন উপ-সহকারী প্রকৌশলীর (ভারপ্রাপ্ত) দায়িত্ব প্রদান করে বিভিন্ন ধরণের নথি প্রস্তুত পূর্বক লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাত করেছেন, উপজেলা আইনশৃঙ্খলা ও উন্নয়ন সমন্বয় সভায় উপজেরার বিভিন্ন দপ্তর, পৌরসভা এবং ইউনিয়ন পরিষদের বিভিন্ন অর্থনৈতিক রিপোর্ট ও কাজের অগ্রগতি প্রতিবেদন সভায় উপস্থাপন করার বিধান থাকলেও মেয়রের দুর্নীতি ও অর্থ আত্মসাতের চিত্র উঠে আসবে মনে করে কোন প্রতিবেদন সভায পেশ করে না এমনকি তিনি প্রায় সভায় অনুপস্থিত থাকেন।
এব্যপারে সাতকানিয়া পৌরসভার মেয়র মো. জোবায়েরের সাথে ফোনে কথা বলতে চাইলে তিনি কথা বলতে আগ্রহ না দেখিয়ে পরে ফোন করেন বলে লাইন কেটে দেন। পরে আবার ফোন করলে তিনি মিটিংয়ে আছেন জানিয়ে বক্তব্য না দিয়ে কল ব্যাক করবেন বলে কেটে দেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *