অস্ট্রিয়াকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে ইতালি

খেলাধুলা

ডেস্ক রিপোর্ট: ইতালির নান্দনিক ফুটবল মুগ্ধ করেছিল সবাইকে। অস্ট্রিয়ার সামনে তাই চ্যালেঞ্জটা ছিল বেশ বড়। কিন্তু ম্যাচের শুরুর দিকে উল্টো নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছিল তারাই। এরপর সময়ের সঙ্গে ইতালি খেলায় ফিরলেও পায়নি গোলের দেখা। জাল খুঁজে পাননি অস্ট্রিয়ার ফুটবলাররাও।

শেষ পর্যন্ত খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। সেখানেই ফেদেরিকো কিয়েসা ও মাতেও পেসিনা গোল করে ব্যবধান গড়ে দেন। অতিরিক্ত সময়ের শেষদিকে এক গোল শোধ দিয়ে ম্যাচ জমিয়ে তুলেছিলেন সাশা কালাইজিচ। শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ডের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ইউরোর শেষ ষোলোর লড়াইয়ে অস্ট্রিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে শেষ আটে পৌঁছে গেছে রবার্তো মানচিনির দল।

রোববার রাত একটায় শুরু হওয়া ম্যাচে পরিষ্কারভাবেই এগিয়ে ছিল ইতালি। কিন্তু ম্যাচের শুরুতে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় অস্ট্রিয়া। তাদের দারুণ পাসিংয়ে বল নিয়ে এগিয়ে চলা ভালোভাবেই পরীক্ষায় ফেলে ইতালির রক্ষণভাগকে।

মাঝেমধ্যেই নিজেদের চেনা রূপে দেখা যাচ্ছিল ইতালিকেও। কিন্তু ম্যাচে মিলছিল না গোলের দেখা। প্রথমার্ধ গোলশূন্যভাবে কাটার পর দ্বিতীয়ার্ধে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন আনেন দুই দলের কোচ।

নিকোলাস ভেরেলার জায়গায় পেসিনা ও ডমিনিকো ভেরাডির বদলি হিসেবে মাঠে নামেন কিয়েসা। নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলায় ফল নির্ধারিত না হওয়ায় খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। তখন গোল করে ইতালির জয় নিশ্চিত করেন এই দুই বদলি ফুটবলারই।

ম্যাচে প্রথম গোলের দেখা মিলে অতিরিক্ত সময়ের পাঁচ মিনিটে। লিওনার্দো স্পিনাজোলার কাছ থেকে বল পেয়ে বাঁ পায়ের দারুণ শটে বল জালে জড়ান কিয়েসা। এর দশ মিনিট পর দ্বিতীয় গোল পেয়ে যায় ইতালি। ফ্রান্সেসকো আচেরবির অ্যাসিস্টে গোল করেন পেসিনা।

দুই গোলে এগিয়ে গিয়েও স্বস্তিতে থাকতে পারেনি ইতালি। ম্যাচের ১১৪ মিনিটে লুইস স্কাহোভের বাড়ানো বল হেডে গোল করেন সাশা। যদিও পরে আর কোনো নাটকীয়তা ঘটেনি। ২-১ গোলের জয় নিয়েই কোয়ার্টার ফাইনালে চলে গেছে রবার্তো মানচিনির দল।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *