আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী জহিরুল ইসলাম সরকার

সারাবাংলা

সোহেল রানা, শ্রীপুর থেকে:
গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার ৬নং বরমী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হিসেবে সবার দোয়া সমর্থন চান বরমী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বরমী বাজার বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম সরকার। তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। গাজীপুর- ৩ আসনের সাংসদ মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ এমপি এর উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে এবং ইকবাল হোসেন সবুজের অত্যন্ত সৎ ও ক্ষুদ্র কর্মী হিসেবে জহিরুল ইসলাম সরকারকে আসন্ন ৬নং বরমী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানান ইউনিয়নের সাধারণ জনগণ। বিভিন্ন সেবামূলক কাজের মাধ্যমে তিনি ইতোমধ্যে সাধারণ মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছেন। ভালোবাসার প্রতিদান হিসেবে সাধারণ জনগণ তাকে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়।
নাগরিক সেবা ও উন্নয়নের প্রত্যাশায় ভোটাররা এবার পরিবর্তনের পক্ষে রায় দিতে চান। নির্বাচিত করতে চান নতুন মুখ। শতভাগ জনপ্রত্যাশা পূরণ করতে সক্ষম এমন কেউ নির্বাচিত হোক এমনটাই প্রত্যাশা সাধারণ জনগণের। মডেল ইউনিয়ন গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে বরমী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী জহিরুল ইসলাম সরকার। তিনি বরমী ইউনিয়নকে আধুনিক ইউনিয়ন পরিষদ হিসেবে গড়ে তুলতে চান। মাদক একটি মরণ ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে সামাজিক আন্দোলনের পাশাপাশি একটি আধুনিক ইউনিয়ন গঠনে কাজ করতে চান তিনি। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে তিনি এসব কাজকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাস্তবায়ন করবেন বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তিনি আরও জানান, আর্থসামাজিক উন্নয়নে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রকল্প গ্রহণ করা হবে। ইউনিয়নের বেহাল সড়কগুলোকে জরুরি ভিত্তিতে সংস্কার করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। গ্রামীণ সড়কগুলো সংস্কার করে যোগাযোগ ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন আনার কথা জানান তিনি। ইতোমধ্যে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে তীব্র শীতের মধ্যে ব্যাপক গণসংযোগ শুরু করেছেন। বরমী ইউনিয়ন এর দরগাচালা বাজার, বরনল মাইজপাড়া, বরমী বাজার কাঁচামালের ব্যবসায়ীসহ, বিভিন্ন শ্রেণির লোকজনদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।
এ বিষয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী জহিরুল ইসলাম সরকার বলেন, আমি ছোট বেলা থেকে ছাত্রলীগ করি। এক সময় বরমী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছি। তার পরে জেলা ছাত্রলীগের সদস্য ছিলাম বেশ কয়েকবার। বর্তমানে বরমী ইউনিয়ন কমিউনিটি পুলিশিং কমিটি ও বরমী বাজার বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছি। তিনি বলেন, আমার মাতৃতুল্য নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একজন কর্মী হিসেবেই সারা জীবন কাজ করতে চাই। আওয়ামী লীগের ব্যানারে থেকে যারা চাঁদাবাজি, ধান্দাবাজি, দখলবাজি ও সন্ত্রাসী করে তাদের উদ্যেশে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে আওয়ামী লীগে আসুন আমি আপনাদের জীবন-জীবিকা চলার ক্ষেত্রে সাবিক সহযোগীতা করবো। প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অংশীদার হিসেবে বরমী ইউনিয়নের সেবা নিশ্চিত করতে চান তিনি। বরমী ইউনিয়ন এর ৯টি ওয়ার্ডকে মাদকমুক্ত চাঁদাবাজি ও জমি জবর দখল এবং ধর্ষণ মুক্ত হিসেবে গড়ে তুলতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *