আকাশ পথে আসে ইয়াবা

সারাবাংলা

ওমর ফারুক, রাজশাহী ব্যুরো
আকাশ পথে আসে ইয়াবা। ইয়াবাগুলো মাদক ব্যবসায়ী সৈয়দ আলম ও অপর একজন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বিমানে বহন করে নিয়ে আসে। শুধু বিমান পথ নয়, স্থলপথও ব্যবহার করেছে তারা। কক্সবাজার জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার বডবাড়িয়া এলাকার সিদ্দিকের বাড়িতে নিয়ে আসে। সেখান থেকে তারা রাজশাহীর বিভিন্ন স্থানে ইয়াবাগুলো বিক্রি ও নিজ বাড়িতে সেবনকারীদের কাছে বিক্রির জন্য সংরক্ষণ করেছিল। আটক মাদক ব্যবসায়ীরা জানিয়েছে, তারা বিমানযোগে ইয়াবাগুলো বহন করে নিয়ে এসেছিল। তবে একে অন্যের উপর দোষ চাপাচ্ছে তারা। ওই বাড়ির সবাই মাদক বিক্রির সাথে জড়িত। সিদ্দিক ও কক্সবাজারের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী জানালা দিয়ে পালিয়ে যাওয়াই দু’জনকে আটক করা সম্ভব হয়নি। র‌্যাব-৫ রাজশাহীর সিপিএসসি মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এটিএম মাইনুল ইসলাম এই তথ্য জানান। স্থানীয়রা জানিয়েছে, ওই বাড়িতে প্রতিদিন অনেক মানুষ মাদক কেনাবেচার কাজে আসে। এছাড়া নিত্য নতুন মেয়ে মানুষ যাতায়াত করে বলে খবর পাওয়া গেছে। আইন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
রাজশাহীর মাদকপ্রবণ উপজেলা চারঘাটে ৯ হাজার ৩১৫ পিস ইয়াবাসহ মা-মেয়ে ও কক্সবাজারের এক শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীসহ তিনজনকে আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৫। আটক হওয়া ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ২৮ লাখ টাকা। এছাড়া নগদ ২৩ হাজার টাকা জব্দ করা হয়েছে। আটককৃতরা হচ্ছে কক্সবাজার জেলার পশ্চিম সিকদারপাড়া হিলা টেকনাফ এলাকার ওমর আলীর ছেলে সৈয়দ আলম (৩৯), রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার বড়বাড়িয়া উত্তরপাড়া এলাকায় সিদ্দিকের স্ত্রী চান বানু (৪২) ও তার মেয়ে সম্পা খাতুন (২০)। গতকাল বুধবার মধ্যরাত আড়াইটার দিকে চারঘাট উপজেলার বড়বাড়িয়া উত্তরপাড়া গ্রামের সিদ্দিকুরের বাড়িতে র‌্যাব-৫ রাজশাহীর সিপিএসসি মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি দল অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।
র‌্যাব জানায়, র‌্যাব-৫ রাজশাহীর সিপিএসসি মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এটিএম মাইনুল ইসলামের নেতৃত্বে চারঘাট উপজেলার বড়বাড়িয়া এলাকার সিদ্দিকের বাড়িতে গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে ঘরের মধ্যে বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রাখা ৯ হাজার ৩১৫ পিস ইয়াবা জব্দ করে। এসময় মাদক ব্যবসায়ী সৈয়দ আলম, চান বানু ও তার মেয়ে সম্পাকে আটক করে। তা ছাড়া নগদ ২৩ হাজার টাকা জব্দ করা হয়। সিদ্দিক ও টেকনাফের আরেক শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী জানালা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ায় তাদের আটক করতে পারেনি র‌্যাব।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *