আঠারবাড়ি নতুন থানা হচ্ছে না

সারাবাংলা

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি:
ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারবাড়ী ইউনিয়ন নতুন থানা হচ্ছে না। প্রশাসনের এমন আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে জাটিয়া ও সোহাগী এ দুটি ইউনিয়নের জনগণ তাদের লাগাতার আন্দোলন কর্মসূচি প্রত্যাহার করেছেন। জাটিয়া ও সোহাগী এ দুটি ইউনিয়ন কেটে আঠারবাড়ীর সাথে অন্তর্ভুক্ত করে নতুন থানা করার প্রতিবাদে দুই ইউনিয়নের বাসিন্দারা গত রবিবার থেকে লাগাতার আন্দোলন কর্মসুচি চালিয়ে যাচ্ছিলেন। নতুন থানা গঠনের বিষয়ে গত ২১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার আঠারবাড়িকে চারটি ইউনিয়ন নিয়ে নতুন থানা করা যায় কিনা এর সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে সরেজমিন এলাকাটি পরিদর্শনে আসেন ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি ব্যারিস্টার হারুন অর রশিদ। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে জাটিয়া ও সোহাগী ইউনিয়নের জনগন আঠারবাড়ীর সাথে অন্তর্ভুক্ত না হওয়ার প্রতিবাদে এবং ঈশ্বরগঞ্জ থানা সাথে থাকার দাবিতে সড়ক অবরোধ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে রোববার জেলা প্রশাসক বরাবরে স্বারক লিপি প্রদান করেন। ২৫জানুয়ারি সোমবার সোহাগী ইউনিয়নবাসী আঠারবাড়ী-ঈশ্বরগঞ্জ রাস্তা অবরোধ করে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। পরে ২৬ জানুয়ারি মঙ্গলবার জাটিয়া ইউনিয়নবাসী ফের উপজেলা সদরে মানববন্ধন ও ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করতে আসলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ক্রাইম ফজলে রাব্বি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জাকির হোসেন আঠারবাড়ী নতুন থানা হচ্ছে না মর্মে আশ্বাস দিলে জাটিয়া ও সোহাগী ইউনিয়নবাসী তাদের কর্মসূচি প্রত্যাহার করেন।
উল্লেখ্য উপজেলার আঠারবাড়ি ইউনিয়নের রায়বাজারে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারিতে একটি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র প্রতিষ্ঠিত হয়। তদন্তকেন্দ্রটি তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উদ্বোধন করেন। আঠারবাড়ি ও সরিষা ইউনিয়নের আইনশৃংখলা পরিস্থিতির সুষ্ঠু নিয়ন্ত্রণ ও মামলার তদন্ত হয় এ কেন্দ্রটিতে। অভিজ্ঞ মহলের মতে আঠারোবাড়ীর জন্য তদন্ত কেন্দ্রটিই যথেষ্ট। পূর্ণাঙ্গ থানার প্রয়োজন নেই। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন জাটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শামছুল হক ঝন্টু, জাটিয়া ইউনিয়ন আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল গণি, দৈনিক ইত্তেফাক প্রতিনিধি সাইফুল ইসলাম তালুকদার, জাটিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহব্বায়ক হেলাল উদ্দিন ফকির, শফিকুল ইসলাম, সাবেক যুবলীগের যুগ্ম আহব্বায়ক শাহ জাহান, উপজেলা যুবলীগের সাবেক শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আল আমিন, আসাদুল্লাহ আসাদ, জাটিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মাসুম বিল্লাহ প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *