‘আফগানিস্তান ছাড়তে শুরু করেছে মার্কিন বাহিনী’

আন্তর্জাতিক

ডেস্ক রিপোর্ট : আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের বিমানবন্দর ছাড়তে শুরু করেছে মার্কিন সামরিক বাহিনী। স্থানীয় সময় শনিবার (২৮ আগস্ট) যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগন এই তথ্য জানায় বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স। এর মাধ্যমে আফগান রাজধানী থেকে মার্কিন বাহিনীর প্রত্যাহার প্রক্রিয়া চূড়ান্ত ধাপে প্রবেশ করল।

দুই সপ্তাহ আগে সামরিক ক্ষমতার জোরে তালেবান আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল দখলে নেওয়ার পর কূটনীতিক, বিদেশি নাগরিক ও সাধারণ আফগান নাগরিকদের মধ্যে দেশত্যাগের হিড়িক পড়ে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ও প্রত্যাহার প্রক্রিয়া সুশৃঙ্খল রাখতে কাবুল বিমানবন্দরে কয়েক হাজার সেনা মোতায়েন করেন জো বাইডেন।

রয়টার্স জানিয়েছে, তালেবান ক্ষমতা নেওয়ার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ৫ হাজার ৮০০ মার্কিন সেনা মোতায়েন করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। তবে আগামী ৩১ আগস্ট (মঙ্গলবার) সেখানে প্রত্যাহার প্রক্রিয়া শেষ করবে দেশটি।

শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তা জানান, কাবুল বিমানবন্দরে বর্তমানে চার হাজারেরও কম মার্কিন সেনা অবস্থান করছেন। পরে পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি সাংবাদিকদের কাছে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

স্থানীয় সময় শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, কাবুল বিমানবন্দর থেকে মার্কিন সেনাদের সরিয়ে নেওয়া শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। অবশ্য কাবুল বিমানবন্দরে এখন ঠিক কত মার্কিন সেনা অবশিষ্ট রয়েছে সে বিষয়ে কোনো তথ্য দিতে রাজি হননি তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলছেন, মার্কিন সেনারা কাবুল বিমানবন্দর ছাড়তে শুরু করার পর থেকে সেখানে হামলার আশঙ্কা ক্রমেই বাড়ছে। তাদের আশঙ্কা, মার্কিন সেনার সংখ্যা কমতে থাকায় বিমানবন্দরে রকেট হামলা বা গাড়ি বোমার মাধ্যমে হামলা হতে পারে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *