আশুলিয়ায় ক্রেনের নিচ থেকে জীবিত উদ্ধার রিকশার যাত্রী

সারাবাংলা

আশুলিয়া প্রতিনিধি
আশুলিয়ার ইয়ারপুর নরসিংহপুর সরকার মার্কেট এলাকা এই দুর্ঘটনাকবলিত ক্রেনের নিচে থেকে অবশেষে দেড় ঘন্টা পর রিকমার যাত্রী আবুর কালামকে উদ্ধার করেছে ফাযার সার্ভিস। তবে আগেই বেঁচে যাওয়া রিকশার আরেক যাত্রী মেহেদী হাসান জানিয়েছিলেন তাদের রিকশার চালকো ক্রেনের নিচে আটকা পড়েছে। তবে ৩ টার দিকে উদ্ধার কাজ শেষে ফায়ার সার্ভিস ক্রেনের নিচে আর কেউ আটকা নেই বলে জানিয়েছেন। নিয়ন্ত্রণ হারানো ক্রেনের নিচে আটকা পড়েছিলেন যাত্রী আবুল কালামম আমরা তাকে জীবিত উদ্ধার করে স্থানীয় নারী ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্র হাসপাতালে পাঠিয়েছি। তিনি জীবিত আছেন। রিকশার আরেক যাত্রী বেঁচে যাওয়া মেহেদির ভাষ্য অসুযায়ী ক্রেনের নিচে রিকশাচালক আটকা ছিলো। তবে অপর ক্রেনের সাহায্য আমরা দুর্ঘটনাকবলিত ক্রেনটি উঠিয়েছি। এর নিচে আর কাউকে চাপা পড়া অবস্খয় পায়নি। তবে দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া রিকশাটি উদ্ধার করা হয়েছে। ডিইপিজেডের দুটি ও টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। যদিও উৎসুক মানুষের ভীড়ের কারণে উদ্ধার কাজ কিছুটা বিঘ্ন হয়। ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার জাহাঙ্গীর আলম এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুব্রত রায় জানান, দুর্ঘটনাকবলিত ক্রেনটির নিচ থেকে একজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। আর কেউ চাপা পড়েনি। সড়কেও যানচলাচল এখন স্বাভাবিক। গতকাল শুক্রবার দুপুরে জামগড়া থেকে টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কে রিকশাযোগে যাচ্ছিলেন আবুল কালাম ও তার ফুপাতো ভাই মেহেদী হাসান। পরে নরসিংহপুর সরকার মার্কেট এলাকায় তাদের রিকশাটিকে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ক্রেন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে চাপা দেয়। এতে মেহেদী রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে বাঁচলেও ক্রেনের নিচে আটকা পড়েন কালাম।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *