আশুলিয়ায় পোশাক কলোনিতে আগুনে পুড়ে ছাই আসবাবপত্র

সারাবাংলা

আশুলিয়া প্রতিনিধি:
আশুলিয়ায় একটি পোশাক কলোনিতে আগুনের ঘটনা ঘটেছে। ফায়ার সার্ভিস আসলেও কলোনিটিতে যাওয়ার রাস্তা সরু হওয়ায় ঢুকতে না পারায় আগুন নিভাতে পারেনি তারা।  সোমবার সকাল আটটার দিকে আশুলিয়ার জিরাবোর বাগানবাড়ি এলাকার জামালের কলোনিতে আগুন লাগে। স্থানীয় বাসিন্দাদের চেষ্টায় তিন ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে পুড়ে যায় সেই কলোনির প্রায় ৬টি কক্ষ। সরজমিনে দেখা যায়, জীরাবো-বিশমাইল আঞ্চলিক সড়ক থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে সেই কলোনি। এই এক কিলোমিটার রাস্তার প্রশস্ত প্রায় ৬ ফুট। যেখানে ফায়ার সার্ভিসের একটি গাড়ি প্রবেশ করা সম্ভব না। কলোনিতে মোট ৯টি কক্ষ রয়েছে। তার মধ্য ৫টি কক্ষই পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে। পুড়ে যাওয়া একটি কক্ষের ভাড়াটিয়া পোশাক শ্রমিক আবু হানিফ বলেন, সকালে আমি কারখানায় চলে গেছি। আমাকে বাসা থেকে ফোন দিয়ে বলে আগুন লেগেছে আপনাদের বাসায়। পরে আমি দ্রুত চলে আসি। কিন্ত এসে দেখি দাউ দাউ করে আগুন জলছে। আমি ফায়ার সার্ভিসকে ফোন দিলাম এর আগেই ফায়ার সার্ভিস এসেছে। কিন্তু রাস্তা ছোট হওয়ায় তারা ঢুকতে পারেনি। পরে আমরাই কষ্ট করে আগুন নিভাই। এর মধ্যে পাঁচটি কক্ষ পুড়ে গেছে। এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমরা প্রথম কল পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যাওয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু আমরা সেই কলোনি পর্যন্ত যেতে পারিনি। কারণ সড়ক অনেক ছোট ছিল। স্থানীয় বাসিন্দারা আগুন নিভায়। কলোনির সবাই পোশাক শ্রমিক। তাদের বড় ক্ষতি হয়ে গিয়েছে। তিনি আরও বলেন, এমন সড়ক হলে আমরা সেখানে কিছুই করতে পারি না। আসলে আমি বলবো যারা নতুন বাড়ি করছে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রবেশের মত সড়ক করে বাড়ি নির্মাণ করবেন। ঘটনার পরপর তাৎক্ষণিকভাবে শ্রমিকদের পাশে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে দাঁড়ালেন সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মেহেদী মঞ্জু। দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী পোশাক শ্রমিকদের জন্য চাল, ডাল, পেঁয়াজ, আলু, লবণ, তেল ও ডিমসহ নিত্যপ্রয়োজনী পণ্য কিনে দেন তিনি।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *