আসামের ১৫ জেলার পানিবন্দি সোয়া ২ লাখ মানুষ

আন্তর্জাতিক

ডেস্ক রিপোর্ট : ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামে দিনদিন বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। প্রবল বর্ষণের কারণে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বেড়ে যাওয়ায় এরইমধ্যে রাজ্যের ১৫ জেলার সোয়া ২ লাখ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, টানা বর্ষণে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বেড়ে বাকসা, বারপেতা, বিশ্বনাথ, বনগাঁও, চিরাং, ধিমাজি, দিবরুগ্রাি, গোলাঘাট, জোরহাট, লক্ষ্মীপুর, মাজুলি, মরিগাঁও, সিভাসাগর, সোনিতপুর এবং তিনসুকিয়া জেলার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। এসব জেলার অন্তত ৫১২টি গ্রাম পানিতে তলিয়ে রয়েছে।

এদিকে বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় ব্রহ্মপুত্রের পানি বেড়েই চলছে। উজানে অরুণাচল প্রদেশে বৃষ্টিপাত ব্রহ্মপুত্রে পানি বাড়িয়ে যাচ্ছে। যা নদটির অববাহিকায় বন্যা পরিস্থিতি ক্রমেই অবনতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন লক্ষ্মীপুর জেলার মানুষ। জেলার ৯১ হাজারের বেশি মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। মাজুলিতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন ৪৭ হাজারের বেশি মানুষ, ধিমাজিতে এ সংখ্যা ৩১ হাজারের বেশি। এরইমধ্যে ৬২টি আশ্রয়কেন্দ্রে বন্যা উপদ্রুত এলাকার প্রায় সাত হাজার মানুষ অবস্থান নিয়েছেন।

এছাড়া বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সেতু। বিভিন্ন এলাকায় পানিতে তলিয়ে গেছে জমির ফসল। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে অনেক এলাকা। বিভিন্ন এলাকায় আটকে পড়া লোকজনকে উদ্ধারে কাজ করছেন উদ্ধারকর্মীরা।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *