আয়রা-তাহসানের যুগলবন্দি পোস্টে মিথিলার ‘হাসি’

Uncategorized বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক: দেশের জনপ্রিয় গায়ক ও অভিনেতা তাহসান রহমান খানের সঙ্গে তার সাবেক স্ত্রী রাফিয়াত রশীদ মিথিলার বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে সাড়ে তিন বছর আগে। তাদের একমাত্র সন্তান মেয়ে আয়রা।

যার প্রতি তাহসানের অগাধ টান। কিছুদিন পর পরই মেয়েকে দেখার জন্য ব্যাকুল হয়ে পড়েন এই গায়ক-অভিনেতা। সুযোগ পেলেই আয়রাকে ডেকে নেন কাছে। ভরিয়ে দেন আদর, ভালোবাসায়।

কিন্তু গত বছরের ৬ ডিসেম্বর মিথিলার সঙ্গে পশ্চিম বাংলার চলচ্চিত্র নির্মাতা সৃজিত মুখার্জীর বিয়ে এবং এর কিছুদিন পরই বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের আধিপত্য- এই দুই মিলে বাধা হয়ে দাঁড়ায় বাবা-মেয়ের ভালোবাসার সামনে।

বিয়ে আর হানিমুন নিয়ে মাস খানেক ব্যস্ত ছিলেন মিথিলা। মেয়ে আয়রা তার সঙ্গেই ছিল। হানিমুন সেরে মিথিলা দেশে ফিরতেই শুরু হয় করোনার তাণ্ডব।

লকডাউনের পুরোটা সময় মিথিলা ঢাকায় ‍গৃহবন্দি ছিলেন। সঙ্গে মেয়েও। লকডাউন ওঠার পর নিজের জগতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন অভিনেত্রী। কলকাতায় যান বর্তমান স্বামী সৃজিতের সঙ্গে দেখা করতে।

মেয়ে ও স্বামীকে সঙ্গে নিয়ে ঘুরে বেড়ান কলকাতার আলীপুরের চিড়িয়াখানা, বাংলাদেশের সুন্দরবনসহ বিভিন্ন জায়গায়। মিথিলার এই নানামুখী ব্যস্ততায় মেয়েকে গত কয়েক মাস কাছে পাননি তাহসান।

সেই সুযোগ অবশেষে মিলেছে সম্প্রতি। আবারও দেখা হয়েছে বাবা-মেয়ের। তারা মেতে ওঠেন খুনসুটিতে। মঙ্গলবার রাতে তারই কয়েক ঝলক পাওয়া গেল তাহসানের ইনস্টাগ্রাম পেজে।

সেখানে দেখা যায়, নানা রকম ফিল্টার লাগিয়ে ইংরেজিতে মজার মজার কথা বলছে ছোট্ট আয়রা। তাকে সমানে সঙ্গ দিয়ে চলেছেন তাহসান।

দেশীয় শোবিজের এই জনপ্রিয় তারকা সাধারণত স্বল্প কথার মানুষ হিসেবেই পরিচিত তার ভক্ত মহলে। তবে মেয়ে আয়রাকে পেলে যেন তার সব কিছুই ওলোট পালট হয়ে যায়।

তাইতো বহুদিন বাদে আয়রাকে কাছে পেয়ে তার সঙ্গে কিছু মুহূর্তের জন্য তাহসানও ফিরে গেলেন শৈশবে।

মেয়ের কথা বলার ধরণ দেখে তার প্রসঙ্গে অভিনেতা লেখেন, ‘সেন্স অব হিউমার একদম আমার মতো।’

বাবা-মেয়ের এই যুগলবন্দি দেখে হাসি ধরে রাখতে পারেননি মিথিলাও। তাহসানের পোস্টে হাসির ইমোজি দিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছেন তাদের এ ভাবে দেখে কতটা খুশি অভিনেত্রী।

মেয়ের সম্পর্কে লেখা তাহসানের মন্তব্যে সহমতও পোষণ করেন তিনি। একসময়ের এই জনপ্রিয় দম্পতির সংক্ষিপ্ত কথোপকথন দেখে উচ্ছ্বসিত তাদের সোশ্যাল মিডিয়ার ভক্তরা। ছোট্ট আয়রাকেও ভালোবাসায় ভরিয়ে দেন তারা।

প্রসঙ্গত, কাজের জন্য মেয়েকে নিয়ে আপাতত ঢাকায় অবস্থান করছেন মিথিলা। জি ফাইভের প্রযোজনায় একটি কাজ সেরে তাদের কলকাতায় ফেরার কথা ছিল।

কিন্তু আরও কয়েকটি কাজ চলে আসায় কয়েকদিন ঢাকাতেই থাকতে হবে মিথিলাকে। সেই সুযোগেই মেয়েকে কাছে ডেকে নিলেন তাহসান। ব্যস্ত রুটিন থেকে সময় বের করে আপাতত তিনি মন ভরে সময় কাটাচ্ছেন আদরের আয়রার সঙ্গে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *