ইউএনও ওয়াহিদা ও তার পিতাকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ফাঁসলেন রবিউল

আইন আদালত সারাবাংলা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানমসহ তার পিতাকে হত্যাচেষ্টা মামলায় রবিউলকে ফাঁসানো হয়েছে এবং চাপ সৃষ্টি করে জবানবন্দি প্রদানে বাধ্য করেছে পুলিশ বলে দাবি করেছে তার পরিবার।

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দিনাজপুর প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রবিউলের পরিবার এই অভিযোগ করেছে। লিখিত বক্তব্যে রবিউলের ভাই রশিদুল ইসলাম দাবী করেন, রবিউল কোনভাবেই এই ঘটনায় জড়িত নয়। তিনি ঘটনার সুষ্টু ও নিরপেক্ষ তদন্ত করে প্রকৃত অপরাধীর বিচার দাবী করেন।

সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয়, ঘটনার রাতে রবিউল দিনাজপুরের বিরলে নিজ বাড়িতেই ছিলো এবং তাদের সঙ্গেই অবস্থান করেছে। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে রবিউলের মা রহিমা বেগম, চাচা ওয়াজ উদ্দিন, এমাজ উদ্দিন, ভাই আজিজুল, রহিদুলসহ গ্রামবাসী উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসভবনে ২ সেপ্টেম্বর দিবাগত গভীর রাতে ইউএনও ওয়াহিদা খানমসহ তার পিতা মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলীকে হাতুড়ি দিয়ে এলাপাতাড়ি আঘাত করা হয়। সংকটাপন্ন অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে প্রথমে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সেখানে ইউএনও’র অবস্থা অবনতি হলে তাকে ঢাকায় নেয়া হয়। এই ঘটনায় ইউএনও’র ভাই শেখ ফারদ উদ্দিন বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে ৩ সেপ্টেম্বর ঘোড়াঘাট থানায় একটি মামলা করেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *