ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কেন্দ্র মোরেলগঞ্জে গর্ভকালীন সেবা নিতে লাগে ৩শ টাকা উৎকোচ

সারাবাংলা

এম. পলাশ শরীফ, মোরেলগঞ্জ থেকে:
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের একটি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কেন্দ্রে গর্ভকালীন সেবা কার্ড নিতে চিকিৎসককে নগদ টাকা দিতে হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। জিউধরা ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের এফডব্লিউভি (পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা) শাহনাজ বেগমের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ তুলেছেন সেবা গ্রহণকারী ৮ জন নারী।
এরা হচ্ছেন ডুমুরিয়া গ্রামের সুমি আক্তার (২২), ডেউয়াতলা গ্রামের লিমা আক্তার (৩৩), নূরজাহান (৩০), ঝর্না বেগম (৩৮), সুপর্না (৩০), রিপা মৃধা (৩২), প্রিয়াংকা শীল (৩৪) ও শনিরজোড় গ্রামের সেলিনা বেগম (৩২)। এই মায়েরা সেবা গ্রহনের পরে সেবাকার্ড পেতে প্রত্যেকে এফপিআই শাহনাজ বেগমেকে ২০০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত দিয়েছেন। গত ২৫ অক্টোবর এই টাকা লেনদেনের ঘটনা ঘটে। পরে ওই টাকা ফেরত দেওয়ার উদ্দেশে স্থানীয় এক ইউপি সদস্যের কাছে জমা করা হলেও সুবিধাভোগীরা এখন পর্যন্ত টাকা ফেরত পাননি। তবে এ অভিযোগ অস্বিকার করে শাহনাজ বেগম বলেন, কয়েকজন সেবা গ্রহিতার সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। তার সমাধানও হয়ে গেছে।
এ সম্পর্কে ওই কেন্দ্রের প্রধান উপ-সহকারী মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. মো. ইকবাল হোসেন বলেন, কয়েকজন সুবিধাভোগীর কাছ থেকে টাকার গ্রহন ও তা ফেরত দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে বলে শুনেছি। এ বিষয়ে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. দিলদার হোসেন বলেন, গর্ভবতী মায়েদের সেবাকার্ডের বিনিময়ে টাকা নেওয়ার কথা শুনেছি। তবে কেউ এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেনি। বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *