ঈশ্বরগঞ্জে অবহেলায় ঝুলছে ছেঁড়া ফেস্টুন

সারাবাংলা

উবায়দুল্লাহ রুমি, ঈশ্বরগঞ্জ থেকে
ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক উপজেলার প্রধান ফটকের সামনে ঝোলানো ফেস্টুনটি অবহেলায় ছেঁড়া ফাটা অবস্থায় ঝুলে রয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক উপজেলা পরিষদ গেটে এই ফেস্টুনটি টানানো হয়। ফেস্টুনে এই স্বাধীনতা তখনই আমার কাছে প্রকৃত স্বাধীনতা হয়ে উঠবে, যেদিন বাংলার কৃষক-মজুর ও দুঃখী মানুষের সকল দুঃখের অবসান হবে” এই অমর বাণী ও বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত ফেস্টুনটি দীর্ঘ দিন ধরে অযত্ন অবহেলায় বাতাসে দোলে রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে ছিঁড়ে ফেটে বিবর্ণ অবস্থায় ঝুলে রয়েছে। ১৭মার্চ থেকে বছর ব্যাপী জন্মশত বার্ষিকী পালনের অংশ হিসেবে এ ফেস্টুনটি টানানোর পর থেকে কেউ কোন খোঁজ খবর রাখেনি।
ঝুলে থাকতে থাকতে জাতির জনকের ছবির অবয়বের ও বিকৃতি ঘটেছে। উপজেলা প্রশাসনের নাকের ডগার উপর বিবর্ণ ফেস্টুনটি দোললেও কোন রাজনৈতিক নেতা বা প্রশাসনিক কর্মকর্তার চোখে পড়ছে না। প্রতিদিন উপজেলা ক্যাম্পাসে নেতা কর্মীদের আগমন ঘটে থাকে এবং সরকারী কর্মকর্তাগণ গেটের সামনে নানা কর্মসূচী পালন করে থাকেন। কিন্তু সর্বকালের সর্ব শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ছবি ও বাণী সম্বলিত ফেস্টুনটি বিকৃত রুপ ধারন করে দিবানিশি দোল খাচ্ছে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা গেটের দক্ষিন পাশের ওয়ালে।
অভিজ্ঞ মহলের মতে ফেস্টুনটি ঝুলিয়ে রেখে বঙ্গবন্ধুর ছবির যেমন অমর্যাদা হচ্ছে তেমনি জন্মশত বার্ষিকী ও অবজ্ঞার শামিল হয়ে পড়েছে। ছবির বিকৃত রুপ ধারণ করা বিবর্ণ ফেস্টুনটি পরিবর্তন করে নতুন একটি ফেস্টুন দেয়ার ব্যাপারে কোন প্রশাসনিক কর্মকর্তার নজরে পড়ছেনা। প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী সরকারী অফিস আদালত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিবর্ন জাতীর পতাকা উত্তোলন বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর বিকৃত ছবি টানানো সম্পূর্ণ নিষেধ। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেনকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন ফেস্টুনটি আমি দেখিনি। রোদ বৃষ্টিতে নষ্ট হতে পারে। বিষয়টি তিনি দেখছেন বলে জানান।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *