ঈশ্বরগঞ্জে গৃধবধূ হত্যা, আটক ১

সারাবাংলা

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ঈশ্বরগঞ্জে তাসলিমা আক্তার (২৮) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে তার শ্বাশুড়ি নুরুন্নাহার বেগমকে আটক করেছে পুলিশ। নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৬ বছর আগে বড়হিত ইউনিয়নের অলিম উদ্দিনের ছেলে সোহেল মিয়া (৩২) এর সঙ্গে মগটুলা ইউনিয়নের নারায়ণপুর গ্রামের আব্দুস সালাম এর মেয়ে তাসলিমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য স্ত্রীর উপর চাপ সৃষ্টি করে আসছিল। ১ ডিসেম্বর বাবার বাড়ি থেকে দুই লক্ষ টাকা এনে দেয়ার জন্য তাসলিমার উপর চাপ সৃষ্টি করলে সে বাপের বাড়ি যায়। তার মা বাবা ওই টাকা দেয়া সম্ভব নয় বলে জানান। পরদিন সে স্বামী বাড়ি ফিরে আসে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে স্বামীর বাড়ি থেকে ফোনে তাসলিমার বাবার বাড়িতে খবর দেয়া হয় তাসলিমা গুরুতর অসুস্থ্য।

তাসলিমার বাবার বাড়ির লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখে তালিমার মরদেহ কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছে। তারা লাশ দেখলে চাইলে স্বামীর বাড়ির লোকজন শুধু মুখমন্ডল ছাড়া বাকি দেহ দেখাতে তালবাহানার আশ্রয় নেয়। এতে তাসলিমার মা বাবা ভাইয়ের সন্দেহ হলে তারা পুলিশে খবর দেয়।

পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় আনার সময় তার গলায় এবং বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন দেখতে পায়। পুলিশ ও পরিবারের ধারণা তাকে যৌতুকের জন্য শারিরিক নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে।

এব্যাপারে ঈশ্বরগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ জহিরুল ইসলাম মুন্না জানান, এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে এবং মামলা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *