ঊনত্রিশ মাস যাতায়াত ভাতা বন্ধ ১৬০ গ্রাম পুলিশের মোরেলগঞ্জ : পরিবার নিয়ে মানবেতর জীবন

সারাবাংলা

এম. পলাশ শরীফ, মোরেলগঞ্জ থেকে:
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলায় ১৬০ জন গ্রাম পুলিশ ও দফাদারদের ২৯ মাস ধরে যাতায়াত ভাতা বন্ধ রয়েছে। ৫ মাস ধরে পাচ্ছেন অর্ধেক বেতন। পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করতে হচ্ছে। সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, প্রত্যন্ত অঞ্চলে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার সার্বক্ষণিক অতন্ত্র প্রহরী গ্রাম পুলিশ। প্রতিনিয়ত আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে সামাজিক নিরাপত্তায় রাতদিন পরিশ্রম করে যাচ্ছে এক সময়ে গ্রাম চৌকিদার নামে এখন গ্রাম পুলিশ। দেশের স্বাধীনতায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছিলেন এই পেশার মানুষ। স্বাধীনতার পরবর্তীতে অনেক পরিবর্তন হলেও ভাগ্যের পরিবর্তন হয়নি এ গ্রাম পুলিশদের। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পরবর্তীতে কিছু সুযোগ সুবিধা পেয়েছেন তারা।
গ্রাম পুলিশদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধি হলেও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের বাজার অনুপাতে ৬ হাজার ৫শ টাকা বেতন থেকে ছেলে-মেয়ে, পরিবার-পরিজন নিয়ে মাস চলতে কষ্ট হয় তাদের। এর মধ্যে চলতি বছরের জুলাই মাস থেকে অর্ধেক বেতন পান তারা। যাতায়াত ভাতা ২৯ মাস ধরে রয়েছে বন্ধ। উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নে গ্রাম পুলিশ রয়েছে ১৬০ জন, এর মধ্যে প্রতিটি ইউনিয়নে একজন করে ১৬ জন রয়েছে দফাদার।
উপজেলা গ্রাম পুলিশ কর্মচারি ইউনিয়ন সভাপতি ও বারইখালী ইউনিয়নের দফাদার আবুল কালাম হাওলাদার, সাধারণ সম্পাদক মো. নান্টু শেখ, জেলা সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম হাওলাদার, উপজেলা সহ-সভাপতি আব্দুল গফফারসহ একাধিক গ্রামপুলিশ সদস্য জানান, গ্রাম পুলিশের মূল বেতন ৬ হাজার ৫শ টাকা। সেখানে ৪ মাস ধরে প্রতিমাসে তুলতে হচ্ছে ৩২৫০ টাকা। দফাদারদের বেতন ৭ হাজার সেখানে পাচ্ছেন ৩ হাজার ৫শ টাকা। এ টাকা থেকে মাস চালাতে কষ্ট হচ্ছে তাদের। হতে হচ্ছে ঋণগ্রস্ত। তারপরও ২৯ মাস ধরে যাতায়াত ভাতা পাচ্ছে না তারা।
প্রধানমন্ত্রীর কাছে তাদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধি ও পূর্নাঙ্গ বেতন যাতায়াত ভাতা সহ প্রয়োজনীয় সব সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধির দাবি জানান। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, গ্রাম পুলিশদের যাতায়াত ভাতা ইউনিয়ন পরিষদের ট্যাক্স, জমি রেজিষ্ট্রি অফিসের একটি অংশ থেকে এ খ্যাতের টাকা দেওয়া হয়। ফাণ্ড না থাকার কারণে তাদের যাতায়াত ভাতা বন্ধ রয়েছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *