এনজিও কর্মীর হাতের কব্জি কেটে টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় দুই নারীসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব

সারাবাংলা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

নরসিংদীতে এক নারী এনজিও কর্মীর হাতের কব্জি কেটে টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় দুই নারীসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। এ সময় ছিনতাই হওয়ায় টাকাও উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেফতাররা হলো- রুবেল মিয়া, আব্দুল বাদশা মিয়া, মাহাবুবা জাহান মেরিনা, মিঠি বেগম। বৃহস্পতিবার সকালে এক বিশেষ অভিযান চালিয়ে নরসিংদীর মাধবদী বাসস্ট্যান্ড থেকে তাদের গ্রেফতার করে র‍্যাব। বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‍্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ছিনতাইয়ে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে গ্রেফতার রুবেল মিয়া ও আব্দুল বাদশা মিয়া। তারা জানায়, ছিনতাইয়ের পর নরসিংদী সদরের ব্রাক্ষণপাড়ায় রুবেলের শ্বশুর বাড়িতে আত্মগাপন করে। সেখানে তারা এনজিও কর্মীর ভ্যানিটি ব্যাগটি আগুনে পুড়িয়ে ফেলে।

মঙ্গলবার এনজিও কর্মী শান্তা আক্তার নরসিংদী শহরের পশ্চিম কান্দাপাড়া এলাকা থেকে ঋণের কিস্তির টাকা আাদায় করে অফিসে ফেরার সময় পশ্চিম কান্দাপাড়া সরকারী মহিলা কলেজের সামনে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী তার রিকশার গতিরাধ করে টাকা ভর্তি ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে রুবেল মিয়া। ওই সময় শান্তা আক্তার বাধা দিলে বাদশা তার হাতে চাপাতি দিয়ে সজোরে কোপ দেয়। পরে আহত শান্তাকে ফেলে টাকার ব্যাগ নিয়ে পালিয়ে যায় তারা।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম জানান, পুরো ছিনতাইয়ের দৃশ্য ওই স্থানের একটি সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়ে। ভিডিও ফুটেজ সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। ওই ঘটনায় মামলা করেন এনজিওর ব্রাঞ্চ ম্যানেজার ইসমাইল শিকদার। পরে অভিযান চালিয়ে ছিনতাই হওয়া দুই লাখ ৬৩ হাজার টাকার মধ্যে এক লাখ ৯১ হাজার ৫০০ টাকা ও ভিকটিমের মোবাইলসহ চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারদের মধ্যে দুইজন নারী।

তিনি আরও জানান, গ্রেফতার চারজনই পেশাদার ছিনতাইকারী এবং বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত। তাদের মধ্যে রুবেলের নামে চারটি, বাদশার নামে আটটি ও মিঠি বেগমের নামে দুটি মামলা রয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *