এবার জ্যাকব জুমার ৩ সন্তানসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা

আন্তর্জাতিক

ডেস্ক রিপোর্ট : সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জনতাকে উত্তেজিত করে দক্ষিণ আফ্রিকায় ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হতে প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে সাবেক রাষ্ট্রপতি জ্যাকব জুমার তিন সন্তানসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দেশটির প্রধান বিরোধীদল গণতান্ত্রিক জোট (ডিএ)।

বুধবার (১৪ জুলাই) কেপটাউনের একটি আদালতে এই মামলা করা হয়।

মামলা দায়ের পর গণতান্ত্রিক জোট (ডিএ) বলেছে, প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জ্যাকব জুমাকে গ্রেফতারের পর তার মেয়ে ও দুই ছেলে ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম ও টুইটারে প্রচুর পোস্ট করেছেন। যা কোয়াজুলু-নাটাল এবং গৌতেংকে অস্থিতিশীল করে তুলেছে এবং সহিংসতা ও লুটপাটকে উৎসাহিত করা হয়েছে। পরবর্তীতে যা দেশের অন্যান্য অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে।

দলটির পক্ষ থেকে জাতীয় প্রসিকিউটিং অথরিটি (এনপিএ) এবং পুলিশমন্ত্রী ভেকি সেলেকে জুমার তিন সন্তান ও জুলিয়াস মালেমার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্তের বিষয়টি নিশ্চিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানানো হয়।

এদিকে দক্ষিণ আফ্রিকায় চলমান সহিংসতায় এখন পর্যন্ত ৭২ জন মারা গেছেন। নিরাপত্তা সংস্থার হাতে আটক হয়েছেন হাজারেরও অধিক মানুষ।

এদিকে সহিংস কর্মকাণ্ড থামাতে বুধবার দেশটিতে নতুন করে পাঁচ হাজার সেনা সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এর আগে প্রতিরক্ষামন্ত্রী কোয়াজুলু নাটাল ও ঘাউটেং প্রভিন্সে ২৫ হাজার সেনা মোতায়েনের জন্য আবেদন জানান। মন্ত্রীর আবেদনের প্রেক্ষিতে বুধবার সন্ধ্যায় পাঁচ হাজার সেনা মোতায়েন করা হয়। পরিস্থিতি বিবেচনায় আরও সেনা মোতায়েন করা হতে পারে।

জুলু রাজার নিন্দা

দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক রাষ্ট্রপতি জ্যাকব জুমার মুক্তি আন্দোলনের নামে দেশটির দুইটি প্রদেশে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের প্রতিবাদ জানিয়েছেন দেশটির বৃহত্তর জনগোষ্ঠী জুলু সম্প্রদায়ের রাজা মিসীজুলু জুলু।

বুধবার কোয়াজুলু নাটাল প্রদেশে নিজ বাড়িতে এক সংবাদ সম্মেলনে রাজা বলেন, দেশে ভয়াবহ অরাজকতার সঙ্গে জুলু সম্প্রদায়ের সম্পৃক্ততার অভিযোগ গোটা সম্প্রদায়ের জন্য লজ্জা এবং অসম্মানজনক। আন্দোলন করতে গিয়ে নিজ দেশের প্রতি এমন আচরণ মোটেও কাম্য নয়। গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ভাষা এমন হওয়া উচিত নয়।

যে কারণে আন্দোলনের শুরু

জ্যাকব জুমার বিরুদ্ধে চলমান দুর্নীতির তদন্তকারীদের তথ্যপ্রমাণ দিয়ে সহযোগিতা না করায় গত ২৯ জুন সকালে আদালত তাকে ১৫ মাসের কারাদণ্ড দেন। রায়ে পাঁচদিনের মধ্যে যেকোনো থানায় তাকে আত্মসমর্পণ করার সময় বেঁধে দেয়া হয়। এরপর গত ৮ জুলাই তিনি আত্মসমর্পণ করেন। জুমার আইনজীবী পরিস্থিতি বিবেচনায় সাজা স্থগিত করার জন্য আবেদন করলে আদালত তা খারিজ করে জুমাকে কারাগারে পাঠান।

জ্যাকব জুমা (৭৯) ২০০৯ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার সরকারি দল আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেসের (এএনসি) প্রধান ও রাষ্ট্রপতি ছিলেন। ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় তার বিরুদ্ধে ঘুষ দুর্নীতির অভিযোগ উঠলে দল ও রাষ্ট্র প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন। বর্তমান তার বিরুদ্ধে অনিয়ম, ঘুষ ও দুর্নীতির ১৯টি মামলা বিচার প্রক্রিয়ায় আছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *