কটিয়াদীতে প্রবাসীর স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা

সারাবাংলা

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে সাবিনা আক্তার (২১) নামে এক গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার সকালে কটিয়াদী পৌরসভার কমরভোগ গ্রামের স্বামীর বসতঘর থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। সাবিনা আক্তারের স্বামী সৌদি প্রবাসী দীন ইসলাম ও এবং একই গ্রামের ফুল মিয়ার মেয়ে। ধারনা করা হচ্ছে গত মঙ্গলবার রাতের কোন এক সময় তার শয়ন কক্ষে দুর্বৃত্তরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলাকেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়। ময়না তদন্তের জন্য মৃতদেহ কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া শয়ন কক্ষ থেকে হত্যার আলামত রক্তমাখা কম্বল ও বিছানার চাদর জব্দ করেছে পুলিশ। ভোরে সাবিনার পিতা ফুল মিয়া নামাজ পড়তে ঘর থেকে বের হয়ে তার মেয়ের ঘরের দরজা খোলা দেখতে পান। এতে তিনি কিছুটা অবাক হয়ে ঘরে ঢুকে বিছানায় মেয়েকে গলা কাটা অবস্থায় দেখতে পেয়ে তিনি চিৎকার শুরু করেন। তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসেন।

নিহতের পিতা ফুল মিয়া জানান, তার চার মেয়ের মধ্যে সাবিনা সবার ছোট। ছোট মেয়ে সাবিনাকে তার বড় ভাইয়ের ছেলে
সৌদি প্রবাসী ভাতিজা দ্বীন ইসলামের সাথে ৩ বছর প‚র্বে বিয়ে দেন। তিনি তার মেয়েকে কে বা কারা হত্যা করেছে তা খুঁজে
বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন। দুর্বৃত্তরা তার মেয়ের ব্যবহৃত দেড় ভরি ওজনের গলা, নাক, কানের স্বর্ণালংকার ও
মোবাইল ফোন নিয়ে গেছে। কটিয়াদী মডেল থানার ওসি এম.এ জলিল বলেন, নিহতের মোবাইল ফোনের সর্বশেষ কল লিস্টের
তথ্য উদঘাটন করলে হয়তো প্রকৃত রহস্য বের হয়ে আসবে। নিহত সাবিনা নিজেই দরজা খুলেছিল না কি কোন দুর্বৃত্ত পূর্বে থেকে
পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে তা খতিয়ে দেখে প্রকৃত অপরাধীকে সনাক্ত ও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া উক্ত ঘটনায়
মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *