কটিয়াদীতে ভ্যাকসিন সংকটের গুজবে টিকাদান কেন্দ্রে ভিড়

সারাবাংলা

ছিদ্দিক মিয়া, কটিয়াদী থেকে:
আগে টিকা না নিলে পড়ে ভ্যাকসিন সংকট হবে গুজবে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনার টিকা নিতে প্রতিদিন উপচে পড়া ভিড় করছে শত শত মানুষ। এতে চাপ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে স্বাস্থ্যকর্মীরা। এদিকে ৭ আগষ্ট থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ে ন্যাশনাল আইডি কার্ডের মাধ্যমে টিকা দেওয়ার ঘোষনা করলেও বিশ^াস করতে পারছেনান সাধারন লোকেরা। কিন্তু উপজেলায় করোনা ভ্যাকসিনের স্বল্পতা নেই বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতিশ্বর পাল।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসূত্রে জানাযায়,নয়টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার সকল নাগরিকদের পর্যায়ক্রমে করোনার ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। ৭ আগষ্ট থেকে প্রতিটি ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড থেকে করোনার ভ্যাকসিন প্রদান করবে স্বাস্থ্যকর্মীরা। অনেকেই গ্রামের মানুষের মুখে টিকা সংকটের গুজবে কান দিয়ে টিকাদান কেন্দ্রে ভিড় জমাচ্ছেন। এ উপজেলায় টিকার কোন ঘাটতি নেই। সকলেই পর্যায়ক্রমে টিকা নিতে পারবে। টিকা গ্রহণে মানুষের আগ্রহ বেড়ে যাওয়ায় প্রতিদিন সকাল থেকেই টিকাদান কেন্দ্রে টিকা নিতে ভিড় জমাচ্ছে মানুষ। তবে টিকা নিতে গিয়ে কেন্দ্রে ভিড় করলে সংক্রমণ বাড়তে পারে। তাই টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে টিকাদান কেন্দ্রে ভিড় না জমানোর অনুরোধ জানিয়েছে চিকিৎসকরা। টিকা নিতে আসা মোঃ শামীম ও হোসনা আক্তার জানান,আগে টিকা নিয়ে নিচ্চি পরে নাও পাওয়া যেতে পারে।কারন ইউনিয়ন পর্যায়ে যে টিকা দিবে লাইনে দাড়িয়ে থাকতে হবে।ভ্যাকসিন সংকট হতে পারে তাই শত কষ্ট হলেও টিকা নিতে আসছি। কটিয়াদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জ্যোতিশ্বর পাল জানান এই উপজেলায় টিকার স্বল্পতা হবে না। পর্যায়ক্রমে সবাই টিকা পাবে। গ্রামে-গঞ্জের মানুষ ৭ আগষ্ট থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকা গ্রহন করতে পারবে। তাই এই করোনা মহামারিতে এসএমএস না পেয়ে অযথা টিকাদান কেন্দ্রে ভিড় না করে বাসায় থাকার আহবান জানান।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *