কমলগঞ্জ পৌর নির্বাচন

সারাবাংলা

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি : কমলগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনকে ঘিরে মেতে উঠেছে জনজীবন। আসন্ন ১৬ জানুয়ারি এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামী লীগের একজন, বিএনপি এক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী দুইজন মেয়র পদে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এ ছাড়া কাউন্সিলর পরে ৩৩ পুরুষ ও ১১ নারী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পৌরসভার মোট ৯টি ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ১৩ হাজার ৯ শত ৫ জন। এ পৌরসভায় নানা উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট চাইছেন প্রার্থীরা। শহরের প্রতিটি সড়কে প্রার্থীদের পক্ষে মাইকিং আর প্রচারণায় যেন উৎসবে পরিণত হয়েছে। লিফলেট বিতরণের জন্য রাখা হয়েছে ভিন্ন ব্যবস্থা। ভোটারদের পরিবর্তে শিশু-কিশোররা এ কাজ করছে। তবে এমন পরিস্থিতিতে বিপাকে পড়েছেন ঘরে বসে অনলাইনে পড়াশোনারত শিক্ষার্থী এবং ও বাড়িতে থাকা অসুস্থ বৃদ্ধরা। করোনাভাইরাস উপেক্ষা করে বিধিবহির্ভূতভাবে মিছিলে মিছিলে ব্যস্ত হয়ে উঠেছে পৌর এলাকার প্রতিটি রাস্তা। অপরদিকে প্রার্থীরা বিভিন্ন পেশাজীবী মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় করে যাচ্ছেন দিনরাত। অন্যদিকে পোস্টার তৈরিতে ব্যস্ত প্রেসের কর্মীরাও। নির্বাচনকে ঘিরে তাদের ব্যস্ততাও বেড়েছে। এলাকার চায়ের দোকানসহ বিভিন্ন হাটবাজারে চলছে প্রার্থীদের যোগ্যতা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনাসহ। চলছে উঠান বৈঠক, মিছিল, গণসংযোগ ও মাইকিং। এ অবস্থায় সাধারণ ভোটাররা চান সব ধরনের সংঘাত এড়িয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিতে। অপরদিকে উপজেলার অলিগলিতে গড়ে উঠেছে চায়ের স্টল ও পিঠার দোকান। এসব দোকানে ব্যাপক ভিড় পরিলক্ষিত হয়। দোকানে গেলে দেখা যায় শুধু ভোটেরই আলাপ। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত আড্ডা জমজমাট। এতে চায়ের দোকানে বিক্রিও ভালোই হচ্ছে। কমলগঞ্জ উপজেলার ভোটার আনিছ মিয়ার ছেলে সাজু কয়ছর মিয়া জানান, পৌর নির্বাচনে যারা উন্নয়ন করবে তাকেই আমরা ভোট দেবো। কমলগঞ্জ উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, নির্বাচন হবে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ। কেউ যদি অন্যায় করতে চায় তাহলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। আমরা জিরো টলারেন্সে কাজ করবো।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *