করোনাকালে তামাবিল স্থলবন্দরে পাঁচ কোটি টাকার রাজস্ব ক্ষতি

অর্থ-বাণিজ্য সারাবাংলা

সিলেট প্রতিনিধি: বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে আমদানি-রফতানি সাময়িক কিছুদিন বন্ধ থাকায় ২০২০ সালে সিলেটের তামাবিল স্থলবন্দরের রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হয়নি।

লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে পাঁচ কোটি ১৪ লাখ টাকা কম আদায় হয়েছে স্থলবন্দরটিতে। এমনকি ২০১৯ সালের চেয়েও রাজস্ব আয় কমেছে প্রায় দেড় কোটি টাকা। কমছে পণ্য আমদানিও।

তামাবিল স্থলবন্দর সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বছরের শেষের দিকে পণ্য রফতানি বেড়েছে। এই অবস্থা অব্যাহত থাকলে চলতি বছর রাজস্ব আদায় লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে।

এদিকে সিলেটের কোয়ারিগুলো থেকে পাথর উত্তোলন বন্ধ থাকায় পাথর আমদানি বেড়েছে। তবে এই বন্দর দিয়ে খুব বেশি পণ্য রফতানি হয় না।

ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, শুল্ক স্টেশন থেকে তামাবিলকে স্থলবন্দরে উন্নীত করা হলেও এখানে এখনও নেই বন্দরের সুবিধা। এরফলে এই স্থলবন্দর দিয়ে পণ্য আমদানি-রফতানিতে ব্যবসায়ীরা তেমন আগ্রহী নন।

তামাবিল স্থলবন্দর সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালে এ স্থলবন্দর দিয়ে ২০ লাখ ৩৬ হাজার ৬৫৬ মেট্রিক টন পণ্য আমদানি হয়েছে।

এতে রাজস্ব আদায় হয় ১৬ কোটি ১৭ লাখ ৭৪ হাজার ৫০০ টাকা। ২০২০ সালে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২০ কোটি টাকা। তবে আদায় হয়েছে ১৪ কোটি ৮৬ লাখ ২৪ হাজার ৭৪৮ টাকা। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে প্রায় পাঁচ কোটি ১৪ লাখ টাকা কম।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *