কলারোয়ায় গৃহবধূর চুল কাটার অভিযোগে থানায় মামলা

সারাবাংলা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নে দুটি ইট চুরির অপবাদ দিয়ে এক গৃহবধূকে গাছে বেঁধে নির্যাতন ও চুল কেটে দেওয়ার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতে কলারোয়া থানায় নির্যাতিতা ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। এর আগে গত সোমবার সকাল ৯টার দিকে ইট চুরির অভিযোগে তার মাথার চুল কেটে দেয় তার প্রতিবেশীরা।
হতদরিদ্র ওই গৃহবধূর নাম রাশিদা বেগম (৪৫)। তিনি দেয়াড়া ইউনিয়নের পাকুড়িয়া গ্রামের ইব্রাহিম গাজীর স্ত্রী। জানা যায়, গত ৮ আগস্ট রাত ১০টার দিকে পাকুড়িয়া গ্রামের ভ্যানচালক নেদু প্রতিবেশী রাশিদা বেগমকে দুটি ইট চুরির অভিযোগ দেয়। পরদিন গত ৯ আগস্ট রাশিদা বেগমকে বাড়ি থেকে ধরে এনে নেদু, তার স্ত্রী, পুত্রবধূসহ পরিবারের সদস্যরা গাছের সঙ্গে বেঁধে বিবস্ত্র করে মারপিট করে ও চুল কেটে ছেড়ে দেয়। খোরদো ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাশিদা বেগমের প্রতিবেশী আব্দুল মান্নান জানান, নেদু ও তার পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করছে রাশিদা বেগম ইট চুরি করেছে। এরপর রাশিদাকে ধরে নিয়ে বাড়ির মহিলারা মধ্যযুগীয় কায়দায় বেঁধে চুল কেটে দিয়েছে। চরম অন্যায় করেছে তারা। আমার কাছে আসলে আমি থানায় অভিযোগ দিতে বলেছিলাম।
কলারোয়া পুলিশ স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর খায়রুল কবির জানান, এঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে রাশিদা বেগম বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পর মামলা হয়েছে। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলাটি নথিভুক্ত করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *