কুষ্টিয়ায় একসঙ্গে ৫ শিশুর জন্ম

সারাবাংলা

ডেস্ক রিপোর্ট: কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে স্বাভাবিক প্রসবে একসঙ্গে পাঁচটি শিশুর জন্ম দিয়েছেন সাদিয়া খাতুন (২৪) নামের এক প্রসূতি।

মঙ্গলবার সকাল ১০টায় একসঙ্গে পাঁচ শিশুর জন্ম দেওয়া ওই প্রসূতি সোমবার রাতে হাসপাতালে ভর্তি হন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আশরাফুল আলম।

সাদিয়া খাতুন কুমারখালী উপজেলার পান্টি গ্রামের সোহেল রানার স্ত্রী। সদ্যোজাত পাঁচ শিশুর মধ্যে একটি ছেলে ও চারটি মেয়ে শিশু বলে জানান স্ক্যানো ওয়ার্ডে দায়িত্বরত সেবিকা আকলিমা খাতুন।

তিন বছর আগে বিয়ে করা সাদিয়া এবারই প্রথম সন্তান জন্ম দিলেন বলে জানান শিশুদের বাবা সোহেল রানা।

গর্ভধারণের পর মাত্র ছয় মাসের মাথায়ই প্রসব বেদনা ওঠায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেছিলেন বলে জানান স্বামী।

হাসপাতালের স্ক্যানো ওয়ার্ডে শিশু বিশেষায়িত ইউনিটে পরিচর্যাধীন অপুষ্ট ও স্বল্প ওজনের (৪৩০ গ্রাম থেকে সর্বোচ্চ ৬০০ গ্রাম পর্যন্ত) এসব সদ্যোজাত শিশুদের সুস্থতা ও রিকভারি নিয়ে চিকিৎসকরা খুব বেশি আশার বাণী শোনাতে পারছেন না।

হাসপাতালের আরএমও ডা. আশরাফুল আলম বলেন, ‘মঙ্গলবার সকালে গাইনি ওয়ার্ডে সাদিয়া খাতুন নামে এক প্রসূতি স্বাভাবিক প্রসবে একসঙ্গে পাঁচটি শিশুর জন্ম দিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘গর্ভধারণের মাত্র ১৮০ দিনের মাথায় স্বল্প ওজনে নিয়ে ভূমিষ্ঠ শিশুগুলোর শারীরিক পূর্ণতা আসেনি। মাত্র ৪৩০ গ্রাম থেকে ৬০০ গ্রামের মধ্যে তাদের ওজন। শিশুগুলো প্রকৃত অর্থে যে ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে আছে, এই স্তরের শিশুদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও পরিচর্যায় যে মানের সক্ষমতা থাকা দরকার তা আমাদের এখানে নেই।’

হাসপাতালের আরএমও বলেন, ‘আমরা স্ক্যানো ওয়ার্ডে শিশু পরিচর্যায় বিদ্যমান যে সক্ষমতা আছে, সেখানে সর্বোচ্চ গুরুত্বসহকারে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতের চেষ্টা করছি। প্রসূতি মা সাদিয়া খাতুন ঝুঁকিমুক্ত। শিশুগুলোর প্রয়োজনীয় উন্নত চিকিৎসা ও পরিচর্যার জন্য ঢাকাতে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।’

 

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *