কৃষ্ণাঙ্গ মহিলা হিসেবে গর্বিত সেরেনা

খেলাধুলা

স্পোর্টস ডেস্ক: টেনিসে কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড় হিসেবে যোগ্য দাম, যোগ্য অর্থ পাননি তিনি। একটি ব্রিটিশ ম্যাগাজিনে বোমা ফাটালেন সেরেনা উইলিয়ামস। সঙ্গে ২৩ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন।

সেরিনা এর আগেও বহু বার বর্ণবিদ্বেষের প্রতিবাদ করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘বর্ণবিদ্বেষী, বৈষম্যমূলক ঘটনা সবার সামনে আনার ক্ষেত্রে একটা বড় ভূমিকা নিয়েছে প্রযুক্তি। অনেক কিছুই এখন উঠে আসছে। যা লুকিয়ে রাখা হয়েছিল। এতদিন ধরে হয়েই আসছে যা। মানুষ যেটাকে সহ্য করে আসছে। এর আগে কেউ ফোন বার করে ভিডিয়ো করেনি।

সেরেনা আরও বলেছেন, ‘এখন যেন ওদের (শ্বেতাঙ্গ) হঠাৎ করে নজরে পড়তে শুরু করেছে সব। এত দিন কারও নজরে পড়েনি কেন? গোটা খেলোয়াড়জীবন জুড়েই তো আমি এই প্রতিবাদ করে আসছি।

বিশ্বের অন্যতম সফল এবং জনপ্রিয় খেলোয়াড় সেরেনা। তার বোন ভিনাসও কম বিখ্যাত নন। তারা সব সময়ই কোর্টে বর্ণবিদ্বেষী কোনও ঘটনার মুখোমুখি হলে প্রতিবাদ করেছেন। ১৪ বছর তিনি ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি প্রতিযোগিতায় খেলেননি ২০০১ সালে বর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য করার পরে। যে ঘটনায় লকার রুমে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। ২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্র ওপেনে কোর্টে র‌্যাকেট আছড়ে ভাঙার পরে তার পয়েন্ট কেটে নেওয়া হয়েছিল। সেরেনা প্রতিবাদ করেছিলেন দ্বিচারিতার অভিযোগ তুলে। যার প্রশংসা করেন বিলি জিন কিং।

তবে সেরেনা একই সঙ্গে এটাও জানিয়েছেন, কৃষ্ণাঙ্গ মহিলা হিসেবে তিনি গর্বিত। ‘মহিলা এবং কৃষ্ণাঙ্গদের দেখিয়ে দিতে হবে প্রতিবাদের ভাষা তাদেরও রয়েছে। ঈশ্বর জানেন, আমি নিজের প্রতিবাদের ভাষা ব্যবহার করি,’ বলেন সেরেনা।

চলতি ফরাসি ওপেন থেকে চোটের জন্য সরে দাঁড়িয়েছেন সেরেনা। এ মৌসুমে আর কোনও প্রতিযোগিতায় খেলবেন কি না এখনও ঠিক করেননি।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *