কেমিকেল বর্জ্য দিয়ে সেতুর মুখ ভরাট

সারাবাংলা

খোরশেদ আলম, আশুলিয়া থেকে : আশুলিয়ায় একটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার ব্রিজের মুখ আটকিয়ে কেমিকেল বর্জ্য ভরাট করে দোকান নির্মাণ করছে। এতে করে এলাকার ব্রিজ দ্রুত সময়ে নষ্ট হয়ে যাওয়াসহ এলাকার মানুষের রোগবালাই বৃদ্ধি হতে পারে বলে জানান এলাকাবাসী। আশুলিয়া থানার ইয়ারপুর ইউনিয়নের তৈয়বপুর এলাকায় তৈয়বুপর ব্রিজের এক পাশে কেমিকেল বর্জ্য দিয়ে মুখ ভরাট করছে এলাকার প্রভাবশালী খলিল মাদবর নামের এক ব্যক্তি। অভিযোগ আছে এই জমির মালিক না হওয়া সত্তেও স্থানীয় কিছু লোকের সহযোগিতা তিনি এ কাজ করছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ব্রিজটির দক্ষিণ পাশের মুখ আটকিয়ে কেমিকেল বর্জ্য ভরাট করা হচ্ছে। এতে করে ব্রিজের দক্ষিণ পাশের চকের পানি বাধাগ্রস্ত তো হয়ে যেতে পারে বন্যা আসলে। এলাকার মানুষ বিষাক্ত পানির জন্য অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে। ওই এলাকার একমাত্র পানি নিষ্কাশনে স্থলটি বন্ধ হওয়ায় পরিবেশ হুমকির মুখে পড়বে বলেও জানান অনেকে।

ব্রিজসংলগ্ন বাড়ির বাসিন্দা হাজী মো: হাশমত আলী মোল্লা বলেন, এই ব্রিজের পাশে যদি কেমিকেলের বর্জ্য ফেলে, তাহলে সহকারী ব্রিজটা ও ড্যামেজ হয়ে যেতে পারে। আর তারা যদি এভাবে বর্জ্য ফেলে ব্রিজের পানি নিষ্কাশনের রাস্তা বন্ধ করে দেয়, তাহলে আমাদের এই এলাকার মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হবে। এই ব্রিজের জন্য বারবার সরকারের কাছে দরখাস্ত করে আর আমাদের ত্রাণ ও দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী ডাক্তার এনামুর রহমানের সহায়তায় আমরা এই ব্রীজটা অনেক কষ্ট করে পেয়েছি। অনেক কষ্টের ব্রিজ যদি কেমিকেলের বর্জ্যে নষ্ট হয়ে যায়, তাহলে আমাদের এলাকার মানুষ কোথায় যাবে। এ ব্যাপারে খলিল মাদবরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জায়গায়টি তাদের। তাই কেমিকেল বর্জ দিয়ে তিনি ভরাট করছেন। তবে আমরা পানি নিষ্কাশনের জন্য একটু জায়গা রেখে মাটি ভরাট করবো বলেও জানান তিনি। ব্রিজ নষ্ট বা ড্যামেজ হওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যদি কেমিকের বর্জের কারণে ব্রিজের ক্ষতি হয়, তাহলে আমরা ওই দিকটা খালি করে দিবো। আপদত ভরছে হয়তো খেয়াল করেনি।

দেশবিদেশের গুরুত্বপূর্ণ সব সংবাদ পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *