`ক্যাপিটল হিলে হামলার সঙ্গে ট্রাম্পের কোনো সম্পৃক্ততা নেই’

আন্তর্জাতিক

ডেস্ক রিপোর্ট : অভিশংসন বিচারে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে তার আইনজীবীরা বলেছেন, ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে উসকানি দেওয়ার অভিযোগ ‘ভয়ংকর মিথ্যা’। একই সঙ্গে ট্রাম্পের আইনজীবী মিখাইল ভন দের ভিন অভিশংসনের বিচারকাজকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে অভিযোগ করেছেন। খবর বিবিসির।

আইনজীবীরা বলেন, ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আনা কোনো অভিযোগই আমলযোগ্য নয়। তিনি সহিংসতার জন্য কোনো নির্দেশ দেননি। সশস্ত্র হামলার মধ্য দিয়ে তিনি রাষ্ট্রক্ষমতা দখলের কোনো চেষ্টা করেননি। মার্কিন সংবিধানে নিশ্চিত করা মতপ্রকাশের স্বাধীনতার সঠিক ব্যবহার করেছেন ট্রাম্প। ক্ষমতা থেকে চলে যাওয়ার পর কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে অভিশংসন দণ্ড আরোপ করা যায় না।

উল্লেখ্য, গত ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় কংগ্রেসে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের বিচারকাজ চলছে। সিনেটে স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুরে চতুর্থ দিনের মতো আদালত শুরু হয়। আগের দুই দিনে ডেমোক্রেটিক পার্টির পক্ষ থেকে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়। পরে শুক্রবার ট্রাম্পের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন তার আইনজীবীরা।

ট্রাম্পের আইনজীবীরা বলেন, ৬ জানুয়ারির ক্যাপিটল হিলের সমাবেশ একদল উগ্রবাদীর পূর্বপরিকল্পনার অংশ ছিল। তারা আগে থেকেই এমন সহিংসতার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছেন। এর সঙ্গে ট্রাম্পের কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

নির্বাচনে হেরে গিয়ে নির্বাচনের সময়ের চেয়ে বেশি ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন রিপাবলিকান প্রার্থী ট্রাম্প। সমর্থকদের নানা সময় উত্তেজিত করে তোলেন তিনি। তার সমর্থকরা সে সময় ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ করে আদালত পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছিলেন। ৬ জানুয়ারি নতুন করে উত্তেজনা শুরু হয়।

ওইদিন ওয়াশিংটনে দেশটির আইনসভা কংগ্রেসের ভবন ক্যাপিটলে কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে সদ্য অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ডেমোক্রাট প্রার্থী জো বাইডেনের জয়ের স্বীকৃতির আনুষ্ঠানিকতা চলছিল। এরই এক পর্যায়ে শুরু হয় বিক্ষোভ। পরে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়। সহিংসতায় এক পুলিশ সদস্যসহ মৃত্যু হয় ছয়জনের।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *