গুগল ফটোস ব্যবহারে কড়ি খরচ করতে হবে গ্রাহকের

তথ্য প্রযুক্তি

তথ্য প্রযুক্তি ডেস্ক : গুগল ফটোস মূলত একটি অনলাইন টুল। আর এই টুলটি গুগল ক্লাউড সার্ভারের সঙ্গে ইন্টিগ্রেড করা। যখনই কোন ইউজার গুগল ফটোসে কোন ফটো আপলোড করে, তখনই এই টুলটি ফটোটিকে ক্লাউড সার্ভারে পাঠিয়ে দেয় এবং সার্ভার সেটিকে সংরক্ষণ করে ফেলে। বর্তমানে গুগল ফটোসে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রতিদিন ১০২ কোটি ছবি স্টোর করা হয়। গুগল তার ফোটো এডিটিং স্যুট আরও উন্নত করতে চলেছে। পাশাপাশিই এবার থেকে গুগল ফটোস -এর কালার পপ অপশন ব্যবহার করতে গেলে গ্যাটের কড়িও খরচ করতে হবে গ্রাহকদের।

গত মাসেই অ্যানড্রয়েড ইউজারদের জন্য সাজেশনসহ নতুন এডিটিং অপশন নিয়ে হাজির হয়েছিল গুগল। গুগল ফটোসের সেই ফিচারে ব্যবহারকারীরা ছবি এডিটও করতে পারছিলেন। ছবির লুক আরও চাকচিক্যবহুল করতে সেখানে কালার পপ অপশনও যোগ করা হয়েছিল। এবার এই কালার পপ ফিচারে আরও বেশি করে ছবি অ্যাড করা যাবে বলে জানানো হল গুগল-এর তরফে।

পাশাপাশি জানানো হল যে, গুগল ফটোস-এর এই কালার পপ অপশন ব্যবহার করতে গেলে এবার থেকে ইউজারকে টাকাও দিতে হবে। আর তার জন্য গুগল ফটোস ব্যবহারকারীকে গুগল ওয়ান-এর সাবস্ক্রিপশন কিনতে হবে। এছাড়া আরও জানা গিয়েছে যে, কিছু দিনের মধ্যেই এই গুগল ফটোস-এর এই কালার পপ অপশনে আরও নানাবিধ ফিচার্স যোগ করা হবে।

গুগল ওয়ান পে ওয়ালে যে, গুগল ফটোস-এর এই কালার পপ ফিচারটি লক করা হয়েছে, তা সর্বপ্রথম ট্যুইট করেন এক্সডিএ ডেভেলপার-এর মিশাল রহমান। আর তারপরই গুগল-এর তরফে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়ে বলা হয় যে, ডেপথ ইনফরমেশনে এখনও ফ্রি-তেই গুগল ফটোস-এর এই কালার পপ ফিচার ব্যবহার করা যাবে। কিন্তু পোর্ট্রেইট নয় বা ছবিতে অনেকে রয়েছেন বা কোনও ল্যান্ডস্কেপ– এমনতর ফোটোর ক্ষেত্রে এই ফিচার ব্যবহার করতে গেলে, ইউজারকে গুগল ওয়ান সাবস্ক্রাইব করতে হবে।

গুগল-এর পক্ষ থেকে বিষয়টি নিয়ে বলা হচ্ছে, ‘ গুগল ফটোস -এর এই কালার পপ ফিচারটি যে কোনও মানুষের জন্য ফ্রি-তেই উপলব্ধ। ডেপথ ইনফরমেশন, যেমন পোর্ট্রেইট মোডের যে কোনও ছবি তুলে তা ফ্রি-তেই এডিট করা যাবে। তবে বহু ছবির জন্য গুগল ফটোস-এর ইউজারদের গুগল ওয়ান সাবস্ক্রাইব করতে হবে।’

গুগল ফটোস-এ ভবিষ্যতে আরও বেশ কিছু প্রিমিয়াম ফিচার যোগ করতে চলেছে গুগল। এক্সডিএ ডেভেলপারেরা গুগল ফটোস ৫.১৮ আপডেটের কোডে প্রবেশ করে দেখতে পান যে, প্রিমিয়াম এডিটিং ট্যুল নিয়ে কাজ করছে গুগল। আর সেই এডিটিং ট্যুল এখন গুগল ওয়ান মেম্বারশীপ-এর আওতায়। যদিও নতুন এডিটিং ট্যুলে আর কী কী যোগ করা হতে পারে, তা নিয়ে এখনও অবধি কিছুই জানানো হয়নি গুগলের পক্ষে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *