চাকরি হারিয়ে পথে বসার অবস্থায় চঞ্চল

বিনোদন

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশি বিনোদনের একটি ব্র্যান্ড অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। ছোট-বড় দুই পর্দায়ই যিনি সমান সাবলীল। মাঝেমধ্যে আবার দর্শকদের মুগ্ধ করেন গান গেয়েও। প্রতি বছর ঈদ উৎসব আসলেই টিভিতে থাকে চঞ্চল চৌধুরীর একাধিক নাটক। এবারও তাই। অভিনেতার এবারের ঈদ আয়োজনের মধ্যে আছে সাত পর্বের একটি ধারাবাহিক। নাম ‘হঠাৎ বাদশাহ’।

কমেডি ঘরানার এই নাটকের চঞ্চল চৌধুরী অভিনয় করেছেন আকবর হোসেন ওরফে মজনু চরিত্রে। এর গল্পে দেখা যাবে, চাকরি হারিয়ে মজনু প্রায় পথে বসার অবস্থা। প্রতিদিনের খরচা, বাসা ভাড়া, সংসার খরচ কীভাবে জোগাড় করবে- এসব নিয়ে সে মহাচিন্তায়। এমন বিপদের দিনে গুপ্তধন পাওয়ার মতো এক জায়গা থেকে আকস্মিকভাবে সে প্রায় এক হাজার কোটি টাকা পায়।

এখন এত টাকা দিয়ে এখন কী করবে মজনু? টাকা পাওয়ার বিষয়টি সে গোপন রাখার প্রয়োজন মনে করে না। প্রকাশ করে দেয়। এরপরই টাকার সন্ধানে ছুটে আসে তার বন্ধু, দূরের ও কাছের আত্মীয়স্বজন। বাড়ি ভরে যায় মিষ্টি আর উপহারে! মজনু কোথায় পেল এত টাকা? এরপর নানা হাস্যরসের মধ্য দিয়ে সেই রহস্যের জট খুলতে থাকে।

সাত পর্বের এই ধারাবাহিকটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন জনপ্রিয় নাট্য নির্মাতা মাসুদ সেজান। এখানে চঞ্চল চৌধুরীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন শবনম ফারিয়া। বিভিন্ন চরিত্রে আরও আছেন শামীমা নাজনীন, মতিউর রহমান, আহসান কবির, সিলভিয়া ও আল আমীন সবুজ প্রমুখ।

নাটকটি প্রসঙ্গে নির্মাতা মাসুদ সেজান বলেন, ‘সুখের দিনে বন্ধুর অভাব হয় না। কিন্তু বিপদের সময় সেসব মানুষ বদলে যায়। সে গল্পই হাস্যরসের মাধ্যমে বলার চেষ্টা করেছি। আশা করছি, ধারাবাহিকটি সবার ভালো লাগবে।’ ‘হঠাৎ বাদশাহ’ ঈদের দিন থেকে পরবর্তী সাত দিন রাত ৯টা ৫৫ মিনিটে বাংলাভিশনে প্রচার হবে বলেও তিনি জানান।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *