চাটখিলে ঘরে ঢুকে দম্পতিকে কুপিয়ে জখম মুখোশধারীদের

সারাবাংলা

রফিকুজ্জামান, চাটখিল থেকে
নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার মানিকপুর গ্রামের মাইজের বাড়িতে গভীর রাতে ঘরে ঢুকে দম্পতিকে কুপিয়ে জখম করেছে মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা। এই হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন ওই বাড়ির বদিউজ্জামানের ছেলে হুমায়ুন কবির (৪৮) ও হুমায়ুনের স্ত্রী শেপালী বেগম (৩৫)। আহত দুইজনকে স্থানীরা উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। বর্তমানে শেপালীর অবস্থা আশংকাজনক। আহত হুমায়ুন কবির জানান, গত শনিবার ভোর ৪টার দিকে কেউ একজন দরজার বাইরে থেকে তাদের দরজা খোলার জন্য বলে। এসময় তারা দরজা না খোলায় মুখোশধারীরা দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে। মুখোশধারীদের মধ্যে ৪ জন তাদের শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে খাটের ওপর উঠে তাকে ও তার স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। হামলাকারীরা তাদের দুইজনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে প্রথমে চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও পরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। তিনি আরও জানান, গত ৭-৮ মাস আগে তার প্রবাসী ভাগিনা আকরাম হোসেনের সঙ্গে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার বাস্তিপুর গ্রামের আবুল কালামের মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে মুঠোফোনে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে ওই মেয়েকে বাড়িতে নেননি তার বোনের পরিবার। বিষয়টি সমাধানের জন্য গত দেড় মাস ধরে ওই মেয়েকে নিজের বাড়িতে রাখেন হুমায়ুন। গত রোববার ওই মেয়ের বড় বোন তাদের মুঠোফোনে হুমকি দেয় এক সপ্তাহের মধ্যে তার বোনকে আকরামের বাড়িতে না নিলে সমস্যা হবে। এ হামলার ঘটনার সঙ্গে তাদের সম্পর্ক থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন হুমায়ুন। চাটখিল পুলিশ স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এখন পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। তবে পুলিশ ঘটনা জানার পর রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা করছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *