চেন্নাইয়ের বিপক্ষের ম্যাচে ছন্দ ফিরাতে মরিয়া রাসেল

খেলাধুলা

স্পোর্টস ডেস্ক: চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে বুধবার নতুন পরীক্ষা কলকাতা নাইট রাইডার্সের। সেই ম্যাচে ছন্দে ফিরতে মরিয়া আন্দ্রে রাসেল। সোমবার কলকাতা নাইট রাইডার্সের ফেসবুক লাইভে তিনি জানিয়ে দিলেন, এখনও অনেক কিছু দেওয়া বাকি। আগে যা হয়েছে ভুলে গিয়ে সামনের ম্যাচের জন্য মনোনিবেশ করছেন। তিনি যে ছন্দে ফিরবেন, সেই প্রতিশ্রুতি দিয়েই নেটে ঢুকলেন বিধ্বংসী অলরাউন্ডার।

শেষ চার ম্যাচে তিনটি ইনিংসে ব্যাট করার সুযোগ পেয়েছেন রাসেল। প্রথম ম্যাচে করেন ১১ রান। দ্বিতীয় ম্যাচে নামতে হয়নি। তৃতীয় ম্যাচে তাঁর ব্যাট থেকে আসে ২৪ রানের ইনিংস। চতুর্থ ম্যাচে ১৩ রানে ফিরে যান তিনি। নাইট সমর্থকেরা প্রত্যেক ম্যাচেই রাসেল-ঝড় দেখার জন্য মুখিয়ে থাকেন।

তাঁদের জন্য রাসেলের প্রতিশ্রুতি, ‘চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচটার দিকে তাকিয়ে আছি। আশা করি, একটা ভাল ম্যাচ হতে চলেছে। আমার এখনও অনেক কিছু দেওয়ার বাকি। ঠিক ছন্দে ফিরব। হয়তো সেটা চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধেই হতে পারে।’

সোমবার শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামের সংলগ্ন মাঠেই অনুশীলন চলে নাইটদের। নেটে শুরুতেই পাঠানো হয় শুভম্যান গিলকে। তাঁকে সঙ্গ দেন রাহুল ত্রিপাঠী। শেষ ম্যাচে আট নম্বরে ব্যাট করতে এসে ১৬ বলে ৩৬ রানের ঝোড়ো ইনিংস উপহার দেন তিনি। মহারাষ্ট্রের ওপেনারকে কেন আট নম্বরে নামানো হল তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় দীনেশ কার্তিককেও। অধিনায়ক জানিয়ে দেন, পরের ম্যাচে সুনীল নারিনকে ওপেন করানো হবে কিনা, তা নিয়ে আলোচনা করা হবে কোচের সঙ্গে। এ দিনের প্র্যাক্টিসে নারিনকে শুরুতে ব্যাট করতে যায়নি। রাহুলকে দিয়ে ওপেন করানোর এটাই কি ইঙ্গিত?

তাছাড়া মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে পুনে সুপারজায়ান্টসের হয়ে ওপেন করতেন রাহুল। সে দলেই ছিলেন দীপক চাহার। নেটে নিয়মিত দীপকের সুইং সামলেছেন রাহুল। এই দীপককে দিয়েই পাওয়ারপ্লেতে তিন ওভার বল করিয়ে দেন ধোনি। রাহুল ওপেন করলে তিনি হয়তো সামলে নেবেন তাঁর এক সময়ের সতীর্থ, দীপককে।

নাইট শিবিরে যদিও চাপ সৃষ্টি করেছে চেন্নাইয়ের শেষ ম্যাচে শেন ওয়াটসনের ছন্দে ফেরা। ১৭৯ রান তাড়া করতে নেমে অপরাজিত ৮৩ করেছেন ওয়াটসন। ৮৭ রানে অপরাজিত ছিলেন ফাফ ডুপ্লেসি। তাই ওয়াটসনকে দ্রুত ফেরানোর দায়িত্ব থাকবে প্যাট কামিন্সের উপরেই। নতুন বলে কামিন্স এ দিন ব্যাটসম্যানের শরীরের কাছে বল করার প্রস্তুতি নেন। কারণ, ওয়াটসন শট খেলার জন্য কিছুটা জায়গা পছন্দ করেন। তিনি যাতে কোনও ভাবেই সেই সুযোগ না পান, তার জন্যই তৈরি হচ্ছেন কামিন্স।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *