চেয়ারে বসা নিয়ে সংঘাত দুর্গাপুর : প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১ ॥ আহত ২

সারাবাংলা

সাহাদাত হোসেন কাজল, দুর্গাপুর থেকে:
স্থানীয় গ্রামের বাজারে একটি দোকানের সামনে রাখা চেয়ারে বসাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মো. আনোয়ার হোসেন (২৫) নামে এক বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্র নিহত হয়েছেন। এসময় ওই ছাত্রের বাবা ও চাচাতো ভাই আহত হন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার চন্ডিগড় ইউনিয়নের বড়ইউন্দ বাজারে এই ঘটনাটি ঘটে। নিহত আনোয়ার হোসেন বড়ইউন্দ গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে এবং ময়মনসিংহ আনন্দমোহন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। আর আহতরা হলেন আনোয়ারের বাবা মকবুল হোসেন ও চাচাতো ভাই মনির হোসেন (২৪)। এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার রাত সাতটার দিকে আনোয়ার হোসেন গ্রামের বাজারে যান। সেখানে একটি চায়ের দোকানে রাখা চেয়ারে তিনি বসতে চান। এ সময় পাশের গ্রাম কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের আনন্দপুর এলাকার মরম আলীর ছেলে জুয়েল মিয়া (২০) তাতে বাধা দেন। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়রা তাদের থামিয়ে দেন। রাত আটটার দিকে আনোয়ার বাজারের একটি মুদির দোকানে বসেছিলেন। এসময় তার চাচা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য আব্দুল জব্বার বিষয়টি মিমাংসার জন্য আনোয়ারকে আরেকটি দোকানের সামনে ডেকে নিয়ে যান। কিন্তু সেখানে ওত পেতে থাকা জুয়েল মিয়া, তার বড় ভাই সোহেল মিয়া (২৩), বাবা মরম আলী (৪৬), স্বজন আমছর আলীসহ কয়েকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আকষ্মিক হামলা চালান। এতে ছুরিকাঘাতে আনোয়ার, মকবুল, মনির আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আনোয়ারকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। গুরুতর আহত মকবুল ও মনিরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই রাতেই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে তারা সেখানে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
দুর্গাপুর পুলিশ স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহনুর এ আলম বলেন, নিহত ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ নিয়ে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। জড়িতদের আটক করতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *