ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ রাজশাহী পলিটেকনিকে

ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ রাজশাহী পলিটেকনিকে

রাজনীতি

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে-এর অধ্যক্ষকে টেনে-হিঁচড়ে পুকুরে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় পাঁচ বছরের জন্য ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির নতুন অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আবদুর রশীদ মল্লিক (৭ জানুয়ারি) এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা জারি করেছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘২০১৯ সালের ২ নভেম্বর ক্যাম্পাসে সংঘটিত ন্যক্কারজনক সন্ত্রাসের পরিপ্রেক্ষিতে গঠিত তদন্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ক্যাম্পাসে পাঁচ বছরের জন্য প্রতিষ্ঠানভিত্তিক সব ধরনের ছাত্র রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড বন্ধ ঘোষণা করা হলো। ঘোষণার প্রতি সবাইকে সচেতন থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো’।

বর্তমান অধ্যক্ষের এ বিজ্ঞপ্তি ছাত্র সংগঠনের নেতারা ফেসবুকে শেয়ার করছেন।

এর আগে ২০১৯ সালের ২ নভেম্বর রাজশাহী পলিটেকনিক শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা প্রতিষ্ঠানটির তৎকালীন অধ্যক্ষ ফরিদ উদ্দীন আহমেদকে প্রকাশ্যেই লাঞ্ছিত করেন।

শিক্ষার্থীদের সামনেই তাকে ক্যাম্পাসের ভেতরের পুকুরে টেনে-হিঁচড়ে ফেলে দেয় তারা। এ ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয় সামাজিক মাধ্যমে।

এ নিয়ে দেশজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে এবং দোষীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়। গঠিত হয় উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটি।

ক্লাসে প্রয়োজনীয় সংখ্যক উপস্থিতি না থাকার কারণে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ দিয়েছিলেন না অধ্যক্ষ ফরিদ উদ্দীন আহম্মেদ। আর এ কারণেই ক্ষিপ্ত হয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাকে পুকুরের পানিতে ফেলে দেন।

এ ঘটনার মামলায় অধ্যক্ষ সাতজনের নাম উল্লেখসহ ৫০ জনকে আসামি করেন। পরে পুলিশ ১৩ জনকে গ্রেফতার করে। আর পদে থাকা নেতাদের দল থেকে বহিষ্কার করে ছাত্রলীগ। পরবর্তীতে তদন্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে চার ছাত্রের ছাত্রত্ব বাতিলসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয় রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট কর্তৃপক্ষ। এরপর সর্বশেষ রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতির ওপর এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলো।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *