জনগণকে কম খাওয়ার নির্দেশ কিমের

আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: উত্তর কোরিয়ায় খাদ্য সংকট চরম আকার ধারণ করেছে। এমন সময় দেশটির সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন দেশের জনগণকে আগামী ২০২৫ সাল পর্যন্ত খাবারের পরিমাণ কমিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

রেডিও ফ্রি এশিয়ার এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে ডেইলি মেইল জানায়, উত্তর কোরিয়ায় ইতোমধ্যে তীব্র খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে। দেশটির কর্মকর্তারা জনগণকে আরও তিন বছর কম খাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। তবে দেশটির জনগণ অভিযোগ তুলেছে তিন বছর তো পরের কথা এই খাদ্য সংকট নিয়ে শীতকাল পার করাও তাদের জন্য কষ্টকর হয়ে যাবে।

পরমাণু অস্ত্র ইস্যুতে দীর্ঘদিন ধরে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার খড়গ ঝুলছে উত্তর কোরিয়ার ওপর। যা দেশটির অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব ফেলেছে। এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে ভারি বর্ষণ ও বন্যার কারণে দেশজ উৎপাদনও তলানিতে ঠেকেছে। যা ধুঁকতে থাকা অর্থনীতির অবস্থা আরও খারাপের দিকে নিয়ে গেছে।

করোনা মহামারির কারণে উত্তর কোরিয়া প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে নিজেদের সীমান্ত বন্ধ করে দেয়। ফলে নিষেধাজ্ঞার বাইরে যেসব দেশের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার আমদানি-রফতানি চালু ছিল তাও বন্ধ হয়ে যায়। এসবের কারণে দেশটিতে দুর্ভিক্ষের ঝুঁকি পর্যন্ত দেখা দেয়।

জাতিসংঘের ফুড অ্যান্ড এগ্রিকালচার সংস্থার (এফএও) এক হিসাব অনুযায়ী, চলতি বছর উত্তর কোরিয়ায় খাদ্য ঘাটতির পরিমাণ ৮ লাখ ৬০ হাজার টন। সূত্র: ডেইলি মেইল

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *