জামালপুরে দুই সহোদরকে ফাঁসি ও ৭ জনকে যাবজ্জীবন

সারাদেশে

নিজস্ব প্রতিবেদক:
জামালপুরে রিকশাচালক রাসেল হত্যা মামলায় দুই সহোদরকে ফাঁসি ও ৭ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে জামালপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

রবিবার (২৭শে সেপ্টেম্বর) দুপুরে আদালতের বিচারক মো: জুলফিকার আলী খাঁন এই দণ্ডাদেশ দেন। এ সময় অপরাধ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার অপর ৪ আসামী হুচ্চু, ফেক্কু, ইয়া মন্ডল ও সাহেব আলীকে বেকসুর খালাস দেন তিনি।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নির্মল কান্তি ভদ্র জানান, ২০০৭ সালে ২৬শে ডিসেম্বর জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে ইসলামপুর উপজেলার পূর্ব শাশারিয়াবাড়ি গ্রামের রাসেলের সাথে প্রতিবেশী ভূট্টু ও তার বন্ধুদের ঝগড়ার ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে পরেরদিন রাতে ভূট্টুর সহযোগীরা রাসেলকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরে সকালে একটি আখ ক্ষেত থেকে রাসেলের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় রাসেলের মা আছিয়া খাতুন বাদী হয়ে ভূট্টুসহ ১৩ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলায় ২৫ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৫ জনের সাক্ষগ্রহণ শেষে ভূট্টু (৩০) ও তার ভাই খালেককে (৪৫) মৃত্যুদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা এছাড়াও ছামিউল (৩০), জহিজল (৩০), রশিদ (৪৫), মো. কাশি (৫০), ফুলু মিয়া (৩০), বিদ্যুত (২৫) ও বাবুল (২৫) কে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেন জামালপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো: জুলফিকার আলী খাঁন।

এই মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি ছিলেন অ্যাডভোকেট নির্মল কান্তি ভদ্র এবং আসামীপক্ষের আইনজীবি ছিলেন অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ ও মো. আনোয়ারুল করিম শাহজাহান।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *