জীবদ্দশায় আব্দুল মান্নান অবসর ভাতা পাবেন কি

সারাবাংলা

একরামুল ইসলাম, পীরগাছা থেকে
চাকরি জীবন থেকে অব্যাহতি পাওয়ার পর বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের কতই না যুদ্ধের মুখোমুখি হতে হয়। জীবনের শেষ দিকে এসে একটু সুখে থাকার আশায় অবসর সুবিধা বোর্ডের শরণাপন্ন হয়। তবে সেখানে এসে দিনের পর দিন ভোগান্তি পোহাতে হয়। অনেক সময় পাঁচ থেকে ছয় বছরেও দেখা মিলে না অবসর ভাতার। আমাদের জীবন গড়তে যারা সাহায্য করেছেন, অথচ তারা এভাবে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। তেমনি রংপুরের পীরগাছা জেএন সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী আব্দুল মান্নান (৬৭)। তিনি ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে চাকরির মেয়াদ পূর্ণ হওয়ায় অবসর গ্রহণ করেন। অবসর গ্রহণের পর তার ১৭ বছরের একটি ছেলে মরণব্যধি ক্যান্সারে মৃত্যুবরণ করেন। তিনি ২০১৬ সালে কল্যাণ ফান্ডের এক লাখ টাকা পেলেও এখন পর্যন্ত অবসরের টাকার মুখ দেখেননি। বেঁচে থাকতে সেই টাকার মুখ দেখতে পারবে কিনা, তারও ভরসা নেই আব্দুল মান্নানের। কারণ ৬৭ বছরে জীবনের কি বা থাকে বাকি। এই বয়সে অনেকেই নুয়ে পড়ে। চলার মতো ক্ষমতা হারিয়ে যায়। তার উপর অবসর ভাতা পাওয়ার ফাইল নিয়ে দৌঁড়ঝাপ। তার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, অবসরের টাকা পেতে ঢাকায় দৌঁড়ঝাপ করা লাগে, কিন্তু ঢাকা যাওয়া আসা করার মতো টাকা তার নেই। পরিবারে কর্মক্ষম কেউ না থাকায়, অনেক দিন যাবৎ অবসরের টাকা না পেয়ে তিনি মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। পরিশেষে আব্দুল মান্নান জেলা শিক্ষা দফতর, অধিদফতর ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির প্রতি অবসর ভাতা উত্তোলণের বিষয়ে সহযোগিতা কামনা করেছেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *