জীবনের গল্প সংগ্রামী জাহানারা

সারাবাংলা

আব্দুল বাশির, গোমস্তাপুর থেকে :
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার ১নং গোমস্তাপুর ইউনিয়নের খোসালপাড়া গ্রামের জাহানারা বেগম এর মাত্র ১২ বছর এ বিয়ে হয়। তার স্বামী এনামুল হক তেলের ব্যবসা করে।তাদের বিয়ের পরে ৩ মেয়ে ও তার ছেলে জন্ম হয়। তেল বিত্রিু করে ছেলে মেয়েদের পড়ালেখার খরচ যোগাতে এনামুল হক এক পর্যায়ে ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ ও হৃদপিন্ডের জটিল রোগে আত্রুান্ত হয় এবং দুটি কিডনি ৬০ ভাগ নষ্ট বলে চিকিৎসকরা জানান।তখন জাহানারা বেগম ৫ সন্তান ও মেয়েদের নিয়ে অন্ধকার দেখেন । তার মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ে। কিভাবে ছেলে মেয়ের খাওয়া- দাওয়া ও লেখা-পড়া চলবে।তারপর শুরু হয় জাহানারা বেগমের সংগ্রামী জীবন । বিভিন্ন নকশী-কাঁথা -সেলাই, গরু পালন স্বামীর রেখে যাওয়া গরু পালন করে গরুর দুধ বিত্রিু এবং গ্রামের বাসা বাড়িতে কাজ করে বহু কষ্টে ছেলেমেয়েদের লেখাপড়া চালিয়ে যান। বর্তমানে তার বড় মেয়ে রহনপুর ইউসুফ আলী সরকারী কলেজ থেকে স্নাতক পাশ করে বর্তমানে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা হিসেবে কর্মরত। তার মেজো মেয়ে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা শেষ করে।তারা সবাই এখন বর্তমানে বিভিন্ন ভাবে আত্মকর্মসংস্থান স্থলে লেগেছে এবং জাহানারা বেগমের অভাবের দিন ফুরিয়ে এসেছে। গোমস্তাপুর উপজেলার জয়িতা নির্বাচন কমিটি তাকে এই উপজেলায় জয়িতা নির্বাচিত করেছে বলে জানান কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

 

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *