জোর করে বিয়ে, চেয়ারম্যানসহ ৯ জন জেলে

সারাবাংলা

ডেস্ক রিপোর্ট: ঠাকুরগাঁওয়ে ‘জোর করে’ বাল্যবিয়ে দেওয়ার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে কনে, ইউপি চেয়ারম্যান, কাজী ও স্থানীয় সাংবাদিকসহ ৯ জনকে গ্রেফতারের আদেশ দিয়েছেন ঠাকুরগাঁও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুর রহমান।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকালে জামিন নিতে আদালতে গেলে বালিয়াডাঙ্গী দসুও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, কাজী আব্দুল কাদের, কনে ও স্থানীয় সাংবাদিক আবুল কালামসহ ৯ জনের জামিন নামঞ্জুর করে তাদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

আদালত সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি একটি শালিসের মাধ্যমে বালিয়াডাঙ্গি উপজেলা চাড়ল ইউনিয়নের পলাশবাড়ী গ্রামের খাদেমুলের নাবালিকা মেয়ের সঙ্গে একই গ্রামের মিজানুরের (২৬) বিয়ে হয়।
তবে বর মিজানুর নাবালিকা মেয়ের সঙ্গে জোরপূর্বক বিয়েটি দেওয়া হয়েছে জানিয়ে ঠাকুরগাঁও কোর্টে ৯ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন।

মিজানুর জানান, অন্যায়ভাবে একটি বিচার শালিসের নামে আমাকে নাবালিকা মেয়ের সঙ্গে বিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাই এই বিষয়ে আমি সঠিক বিচার দাবি করছি।

এদিকে পুরো বিষয়টিকে রহস্যজনক বলে এর সঠিক তদন্ত দাবি করেছেন আসামির স্বজনরা। তাদের দাবি- যে মেয়েটিকে নাবালিকা বলা হচ্ছে, এটি তার দ্বিতীয় বিয়ে। আগেই যেখানে তার একটি বিয়ে হয়েছিলো তাহলে সে কীভাবে নাবালিকা হয়?

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *