ঝালকাঠিতে যৌতুক মামলায় ফিরোজ তালুকদার কারাগারে

সারাবাংলা

ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠিতে যৌতুক মামলায় একাধিক বিয়ের নায়ক ফিরোজ তালুকদারকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। বৃহষ্পতিবার ঝালকাঠি সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক প্রতারক ফিরোজ তালুকদারকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। প্রতারক ফিরোজ তালুকদার ঝালকাঠি সদর উপজেলার নথুল্লাবাদ গ্রামের মৃত. সোহরাব তালুকদারের বড় ছেলে। জানা গেছে সিআর মোকাদ্দমা নং-৯৫/২০ মামলায় ২১ অক্টোবর রাতে ঝালকাঠি থানা পুলিশ ফিরোজকে আটক করে আদালতে প্রেরন করে। মামলার বিবরনে প্রকাশ, বিগত ৯/৬/২০১৩ ইং তারিখ কাবিন মুলে ও ইসলামী শরা শরিয়ত মোতাবেক জেলার নলছিটি উপজেলার রায়াপুর গ্রামের মোফাজ্জেল হোসেন খানের মেয়ে মাজেদার সাথে বিবাহ হয়। বিবাহের পর পরই বর যাত্রীর মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক ভাবে তুলিয়া নেয়। তুলিয়া নেওয়ার সময় মাজেদার পরিবার ২ খানা স্বর্নের জিনিস ও স্বর্নের আংটি সহ প্রায় ১,০০,০০০/-(এক লক্ষ) টাকার মালামাল দেয়। প্রতারক মুখোশধারী ফিরোজ নগদ ৭৫,০০০/- (পচাঁত্তর হাজার) টাকাও ব্যবসার কথা বলে নেয়। পরে ফিরোজের নির্যাতনের কারনে বিগত ইং ১০/০৭/২০১৯ তারিখ অসহায় মাজেদা বেগম নালিশী মামলা দায়ের করিলে বিজ্ঞ আদালত প্রতারক ফিরোজের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করে। স্থানীয় কুচক্রী মহলের অশুভ ইঙ্গিতে সুকৌশলে মামলার তারিখ ১৫/০৩/২০২০ ইং তারিখে আদালতে উপস্থিত হইতে বিরত রাখায় বিজ্ঞ আদালত বাদীনি উপস্থিতি না থাকার অযুহাতে ফৌঃ কাঃ বিধি ২৪৭ ধারায় খারিজ করে দেয়। বিগত ইং ১৪/০৮/২০২০ তারিখ যৌতুক লোভী ফিরোজ তালুকদার পুনরায় যৌতুকের দাবীতে অটুট থাকায় নির্যাতিত মাজেদা বাধ্য হইয়া আদালতে পুনরায় সরনাপন্ন হইয়া অত্র মামলা দায়ের করেন কারন প্রতারক ফিরোজ একই বাড়ির মালেক তালুকদারের মেয়ে দিপাকে বিয়ে করে। মাজেদার বাবা অচল থাকায় মাজেদা বেগম তার একমাত্র ৪ বছরের নাবালক ছেলে মুশফিককে নিয়ে বাবার বাড়িতে কষ্টে জীবন যাপন করছে। মাজেদা এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের কাছে বিচার দাবী করেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *