টাঙ্গাইলে দৃষ্টি প্রতিবন্ধীকে ঘর উপহার নারী ভাইস-চেয়ারম্যানের

সারাবাংলা

ইমরুল হাসান বাবু, টাঙ্গাইল থেকে:
টাঙ্গাইলে আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় প্রধানমন্ত্রীর ঘর পেয়েছেন অন্তত এক হাজারের বেশি পরিবার। সরকারি ব্যবস্থাপনা ছাড়াও টাঙ্গাইলে ব্যক্তি উদ্যোগে ঘর নির্মাণ করে দিয়েছেন সদর উপজেলা নারী ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা আক্তার। শামীমার এমন উদ্যোগ প্রশংসায় ভাসছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বিত্তবানদের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সচেতন মহল।
জানা যায়, সদর উপজেলার দ্যাইন্যা ইউনিয়নের চর ফতেপুর খোশালিয়া গ্রামের ৬৫ বছরের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এলাহী মোল্লাকে নিজস্ব অর্থায়নে ঘর উপহার দেন সদর উপজেলার নারী ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা আক্তার।
এমন মহতী কাজের ভূসয়ী প্রসংশা করেছেন এলাকার সুধীজন। তারা বলেন, সদর উপজেলা নারী ভাইস-চেয়ারম্যান শামীমা আক্তার একজন দানশীল মানুষ। করোনার সময় তিনি নিজ অর্থায়নে চর এলাকার অসহায় মানুষের পাশে তিনি থেকেছেন এবং আছেন। কিন্তু নিজ অর্থায়নে বৃদ্ধ এক প্রতিবন্ধীকে নিজের টাকায় ঘর উপহার দিয়ে এলাকায় সাধারণ মানুষের মনের ভেতর জায়গা করে নিয়েছে। আমরা তার মঙ্গল কামনা করছি।
ঘর পেয়ে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এলাহি বলেন, করোনার সময় ভিক্ষার টাকা খুব একটা পাই না। খুব কষ্টে দিনাপাত করে আসছিলাম। হঠাৎ একদিন কোথা থেকে একজন নারী আসলো আমাকে এক বস্তা খাদ্য সামগ্রী দিলেন। বললো বাবা দেখি আপনার জন্য কিছু করতে পারি কি না। তিনি আমাকে একটি ঘর উপহার দিয়েছে। শেষ বয়সে ঘর পেয়ে আমি খুশি হয়েছি। আল্লাহ আমাদের নারী ভাইস-চেয়ারম্যান শামীমা আক্তারকে হাজার বছরের আয়ু দান করেন।
এ ব্যাপারে দ্যাইন্যা ইউনিয়নের মো. লাভলু মিয়া লাবু বলেন, সদর উপজেলার নারী ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা আক্তার তার নিজস্ব অর্থায়নে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এলাহীকে ঘর উপহার দেওয়ার বিষয়টি আমি জানি। এমন উদ্যোগে আমার ইউনিয়নবাসীর সঙ্গে আমি নিজেও খুব খুশি হয়েছি।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *