`টিকটক’ রাজনীতিতে অনিচ্ছুক শ্রীলেখা

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক: সম্প্রতি মিডিয়া খবরের পাতায় শিরোনাম হয়ে আসছে শ্রীলেখা দেবীর রাজনীতির মাঠে আসা নিয়ে। অবশেষে রাজনীতির মাঠে নামা নিয়ে মুখ খুললেন  অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

কিছুদিন আগে সিপিএমের একটি অনুষ্ঠানে হাজির হওয়ার পর এ খবর বাতাসে ভাসতে থাকে। সময়ের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়। অবশেষে এ বিষয়ে মুখ খুললেন শ্রীলেখা। তার ভাষায়—রাজনীতির খবর পুরোটাই গুজব।

এ রকম কিছুই করছি না। ভবিষ্যতে যদি রাজনীতির মাঠে নামি তবে জানাবো।

বাম রাজনীতি সমর্থন করেন শ্রীলেখা। তারপরও কেন সক্রিয়ভাবে রাজনীতিতে আসছেন না? জবাবে এ অভিনেত্রী বলেন—রাজনীতিমনস্ক হলেও আদতে আমি শিল্পী। তাই মনপ্রাণ ঢেলে অভিনয়টাই করতে চাই।

বাম দলের সমর্থনে মিটিং, মিছিল, রক্তদান শিবির, শ্রমজীবী ক্যান্টিনে যোগ দিলেও এখনো সিপিএম সম্পর্কে অনেক কিছু শেখার আছে। তাই অর্ধেক জেনে কোনো কাজে নামতে রাজি নই। আমি কখনো স্বপ্ন দেখি না এমএলএ বা এমপি হবো। রাজনীতিমনস্ক আর সরাসরি রাজনীতিতে যোগদান কিন্তু এক নয়।

রাজনীতির মাঠে না নেমেও মানুষের পাশে দাঁড়ানো যায় বলে বিশ্বাস করেন শ্রীলেখা। টলিউডের তারকা অভিনেত্রী মিমি-নুসরাত তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

নাম উল্লেখ না করে তাদেরকে খোঁচা দিয়ে শ্রীলেখা বলেন—কিছু মানুষ রাজনীতিও করেন আবার টিকটক ভিডিও করেন। ওটা আমি পারবো না। কারণ একসঙ্গে দুটো কাজ আমার দ্বারা হয় না। এখনো অভিনয়ে ডুবে আছি। তাই আর অন্য কিছুতে মন দিতে রাজি নই।

লকডাউনের সময়ে টিকটক ভিডিও করে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন মিমি চক্রবর্তী ও নুসরাত জাহান।

তৃণমূলের সাংসদ হয়ে এমন কাজ করায় অনেকে তা ভালোভাবে গ্রহণ করেননি। আর এ ধরনের রাজনীতি করতে অনিচ্ছুক এই অভিনেত্রী।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *