টিকা রপ্তানির জন্য প্রস্তুত সিরাম

আন্তর্জাতিক

অনলাইন ডেস্ক: অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনেকা উদ্ভাবিত করোনাভাইরাস টিকা তৈরি করছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকা তৈরির প্রতিষ্ঠান সিরাম ইনস্টিটিউট। সিরামের সিইও আদর পুনাওয়ালা এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, এরই মধ্যে অক্সফোর্ডে টিকা ‘কোভিশিল্ড’ এর পাঁচ কোটি ডোজ তৈরি করা হয়েছে। টিকা বিক্রি করতেও প্রস্তুত তারা।

তবে ভারত সরকার কয়েকমাসের জন্য সিরামকে টিকা রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এই কারণে এখনই টিকা রপ্তানি করতে পারবে না তারা। তবে নিষেধাজ্ঞা ওঠার সাথেই যেন টিকা রপ্তানি করা যায় তার জন্য আরও প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারতের এই টিকা তৈরি সংস্থা।

ভারতে তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনেকার এই টিকাকে করোনার বিরুদ্ধে ‘নিরাপদ এবং কার্যকর’ও বলেছেন পুনাওয়ালা।

টিকার দামের ব্যাপারে আদর পুনাওয়ালা জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে ভারত সরকারের কাছে ২০০ রুপিতে এবং সাধারণের কাছে এক হাজার রুপিতে বিক্রি করা হবে। পরে দাম বাড়ানো হবে।

এর আগে আগামী মার্চের মধ্যে ১০ কোটি ডোজ টিকা তৈরির পরিকল্পনার কথা জানিয়েছিল সিরাম। রবিবার এক টুইটবার্তায় সিরাম কর্তা জানান, ‘টিকা বানিয়ে মজুত করা নিয়ে ঝুঁকির কাজ শেষ হল। কোভিশিল্ড ভারতের প্রথম কোভিড-১৯ টিকা যা অনুমোদিত, নিরাপদ, কার্যকর এবং আগামী সপ্তাহে দেয়ার জন্য তৈরি’।

টিকা তৈরি সক্ষমতা সম্পর্কে জানিয়ে আদর বলেন, প্রতি মিনিটে প্রায় ৫ হাজার কোভিশিল্ডের ডোজ তৈরি করতে পারে তাদের সংস্থা। এই টিকা যাতে বিদেশে সরবরাহ করা যায় সে ব্যাপারেও সরকারের কাছে অনুমতি চাইবেন তারা।

তিনি বলেন, ‘সৌদি আরব ছাড়াও একাধিক দেশের সঙ্গে আমাদের দ্বিপাক্ষিক চুক্তি রয়েছে। কিন্তু অনুমতি না থাকায় এখন আমরা টিকা রপ্তানি করতে পারব না। আমরা সরকারের কাছে অনুরোধ করব কয়েক সপ্তাহের মধ্যে যাতে বিভিন্ন দেশে এটি আমরা বিক্রি করতে পারি।’

ভারতের পুনে শহরে অবস্থিত সিরাম ইনস্টিটিউট হলো টিকাসহ ইমিউনোবায়োলজিক ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান। এটি ১৯৬৬ সালে প্রতিষ্ঠা করেন সাইরাস পুনাওয়ালা। ২০২০ সালে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি টিকা তৈরি করেছে এই প্রতিষ্ঠান। বছরে তারা ১.৫ বিলিয়ন ডোজ টিকা তৈরি করতে পারে। এর মধ্যে রয়েছে যক্ষ্মার টিকা টিউবারক (বিসিজি), পলিওমিলাইটিসের জন্য পলিওভাক এবং শৈশবকালীন অন্যান্য টিকা।

এই কোম্পানি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনেকার করোনা টিকার ১০০ মিলিয়ন ডোজ (১০ কোটি) তৈরি করবে। সেগুলো ভারত এবং অন্যান্য নিম্ন আয়ের দেশগুলোতে স্বল্পমূল্যে বিক্রি করবে। এর পাশাপাশি নভোভ্যাক্সের করোনা টিকাও তৈরি করবে সিরাম। এটিও তারা ভারতে এবং অন্যান্য দেশগুলোতে বিক্রি করবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *