ট্রেইলারটির এক লাখ শেয়ারেই মুক্তি ‘উনপঞ্চাশ বাতাস’

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক:

বাংলা সিনেমার স্বার্থে করোনা মহামারির নিদানকালে ঝুঁকি নিয়ে ‘উনপঞ্চাশ বাতাস’ সিনেমা মুক্তি দিতে এগিয়ে আসছেন নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল। সিনেমার প্রকাশিত ট্রেইলারটি এক লাখ শেয়ার হলেই অর্থনৈতিক ঝুঁকি নেবেন বলে জানান পরিচালক।

গল্প নির্ভর সিনেমা, ভালো নির্মাণসহ নানা কারণে হলবিমুখ বাংলা সিনেমার দর্শক। তার মধ্যে করোনার আঘাত। বন্ধ হয়ে যায় ধুঁকতে ধুঁকতে চলছে সিনেমা হল। কঠিন শঙ্কা জাগে বাংলা সিনেমার ভবিষ্যৎ নিয়ে। তবে এবার হল খুলে দেযার সিদ্ধান্ত নিয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়।

১৬ অক্টোবর খুলে দেয়া হতে পারে প্রেক্ষাগৃহ। স্বাস্থ্যবিধি মেনে হলে যেতে পারবে দর্শক। হল খুলে দিলেও সিনেমার আছে সংকট। অর্থনৈতিক এমন মন্দার সময়ে কোন সিনেমা মুক্তি দিলে গুণতে হতে পারে লোকসানের অংক, তাই প্রযোজকরা আছে শঙ্কায়।

বাংলা সিনেমাকে বাঁচাতে সিনেমা মুক্তি দিতে এগিয়ে আসছেন নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বল। তিনি বলেন, ‘ছবি মুক্তি দেয়ার সম্ভাবনা যেহেতু তৈরি হয়েছে তখন সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে কথা বলে দেখলাম সবাই একটু দ্বিধান্বিত। সবাই যদি দ্বিধান্বিত থাকেন তাহলে হল খুলে কি বা লাভ।’

হল খুলে দিলেই মুক্তি দেয়া হতে পারে আলোচিত সিনেমা ‘উনপঞ্চাশ বাতাস’। এমন ঝুঁকি নিতে নির্মাতার আছে ছোট একটা দাবি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার শেয়ার করা অফিশিয়াল ট্রেইলারের পোস্টটি যদি লাখখানেক মানুষের ওয়ালে শেয়ার হয়, তাহলেই তিনি সিনেমা হল খোলার সঙ্গে সঙ্গে ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ ছবিটি মুক্তি দেবেন।

এ বিষয়ে পরিচালক মাসুদ হাসান উজ্জল বলেন, ‘ছবি বানিয়েছি দর্শকের জন্য, তো দর্শক একটু দায়িত্ব নিক। আমরা আহ্বান করি, ট্রেইলারটা যদি ১ লক্ষ পেইজে শেয়ার হয়। তাহলে আমি সিনেমা হলে ছবিটি মুক্তি দেবো।’

বাংলা সিনেমাকে টিকিয়ে রাখতে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান চলচ্চিত্রটির নির্মাতা। মাসুদ হাসান উজ্জল আরো বলেন, ‘দর্শক যদি আমাকে ওই পরিমাণ সাপোর্ট করেন, তাহলে দর্শকের প্রতি দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে ছবি আমি ঝুঁকি নিয়ে মুক্তি দিয়ে দিবো।’

গত ১৩ মার্চ মুক্তির কথা ছিল ঊনপঞ্চাশ বাতাস সিনেমা। কিন্তু করোনার জন্য পিছিয়ে পরে সিনেমাটির মুক্তি। বাংলা সিনেমাকে বাঁচিয়ে তুলতে আপনিও শেয়ার করুন সিনেমাটির ট্রেইলার। মন্দাকালে পাশে দাঁড়ান বাংলা সিনেমার।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *