তিন প্রতিবন্ধী সন্তান নিয়ে সেলিনার বেঁচে থাকার লড়াই

সারাবাংলা

সাফায়েত হোসেন, দশমিনা থেকে : সেলিনা বেগম বয়স (৪৫) দীর্ঘদিন আগে স্বামী সুলতান মোল্লা মারা যাওয়ার পর তিন জন্ম প্রতিবন্ধী সন্তান শাওন মোল্লা (২২) সাগর মোল্লা (২০) ও হৃদয় মোল্লাকে (১৮) নিয়ে বেঁচে থাকার যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছেন। স্বামীর রেখে যাওয়া খড়কুটোর ঘর ছাড়া কিছুই নেই। তিন পঙ্গু প্রতিবন্ধী সন্তান নিয়ে বেঁচে থাকার আকুতি হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন সেলিনা বেগম। তিন ছেলের সামান্য সরকারি প্রতিবন্ধী ভাতার টাকা ও আশপাশের মানুষের সাহায্য সহায়তা নিয়ে আধা পেট খেয়ে না খেয়ে চলে তাদের বেঁচে থাকার লড়াই। সেলিনা বেগমের তিন ছেলের দেখভাল করতেই দিন কেটে যায়, তাই অন্য কোথাও কাজ করে অর্থ উপার্যনের পথ খোলা নেই। অসহায় সেলিনা বেগমের প্রতিবন্ধী সন্তানদের বাঁচিয়ে রাখার বুক ফাটা আর্তনাদ কোনো বিত্তবানের কান পর্যন্ত কখনো পৌছায়নি। দিন দিন ফিঁকে হয়ে আসছে তাদের বেঁচে থাকার আশা। অসহায় সেলিনা বেগমের তিন সন্তান নিয়ে বেঁচে থাকার ঘটনা সিনিয়র আইনজীবী ইকবাল হোসেন ছবি সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিলে পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া ফেরদৌস এর নজরে আসে বিষয়টি। তিনি বৃহস্পতিবার দশমিনা উপজেলার কাউনিয়া গ্রামে ছুটে যান ওই পরিবারটির কাছে। ইউএনও ওই পরিবারটিকে পাচ হাজার টাকা, শীতের পোষাক, চাল, ডাল সহ এক মাসের নিত্য প্রয়োজনীয় বাজার কিনে দিয়েছেন। এছাড়া ওই পরিবারটিকে প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত পাকা ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। সেলিনা বেগম জানান, স্বামী মারা যাবার পর জন্ম থেকে পঙ্গু তিন সন্তান নিয়ে কোন মতে খেয়ে না খেয়ে বেঁচে আছি। টাকার অভাবে ছেলেদের কোনো চিকিৎসা করাতে পারিনি একমাত্র আল্লাহই ভাল জানেন আমরা কিভাবে বেঁচে থাকবো। সেলিনা বেগম তার সন্তানদের বাঁচিয়ে রাখার জন্য বিত্তবানদের সাহায্য কামনা করেছেন।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *