দলীয় কোন্দলে বিপর্যস্ত মানিকগঞ্জ বিএনপি বাইশ বছরেও হয়নি পূর্ণাঙ্গ কমিটি

সারাবাংলা

মানিকগঞ্জ সংবাদদাতা:
মানিকগঞ্জে অভ্যন্তরীণ কোন্দল আর নেতৃত্বের বিরোধে দীর্ঘদিন ধরে ঘুরে দাঁড়াতে পারছে না বিএনপি। দলীয় কোন্দল চরম আকার ধারণ করায় তৃণমূল নেতাকর্মীরা রাজনীতির মাঠে ঝিমিয়ে পড়েছেন। বর্তমানে দলে দুটি গ্রুপ দৃশ্যমান। ফলে নিজেরাই এখন নিজেদের প্রতিপক্ষ। এতে তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছে। একইসঙ্গে কেন্দ্রীয় কর্মসূচিসহ সব ধরনের দলীয় কর্মকাণ্ডে নেতাকর্মীরা নিজেদেরকে গুটিয়ে রেখেছেন।
মাঝেমধ্যে কর্মসূচি হাতে নিলেও তা বাস্তবায়ন করতে পারছে না মানিকগঞ্জ জেলা বিএনপি। ফলে কোনো কর্মসূচিই সফল হচ্ছে না তাদের। এ ছাড়া দলীয় বিভক্তির কারণে ২২ বছরেও পূর্ণাঙ্গ হয়নি জেলা কমিটি। এক সময় মানিকগঞ্জে বিএনপি শক্ত অবস্থানে থাকলেও বর্তমানে দলীয় কোন্দলে দ্বিধাবিভক্ত। ফলে দলটি পুনরুদ্ধার করতে পারছে না তাদের আগের অবস্থান।
জানা যায়, প্রয়াত মন্ত্রী হারুন অর রশিদ খান মুন্নুকে জেলা আহ্বায়ক ও জামিলুর রশীদ খানকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ১৯৯৮ সালে কমিটি করা হয়। সে কমিটি পূর্ণাঙ্গ হওয়ার আগেই ২০০১ সালে ভেঙে যায়। এভাবেই দলটি এক যুগ চলার পর ২০১৩ সালে আফরোজা খান রিতাকে সভাপতি ও মঈনুল ইসলাম খান শান্তকে সাধারণ সম্পাদক করে ১৬ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটি করা হয়।
দীর্ঘ সময় পার হলেও সে কমিটি পূর্ণাঙ্গ হয়নি। এছাড়া সাংগঠনিক কার্যক্রমেও ভূমিকা রাখতে পারেনি। সর্বশেষ ২০১৯ সালের ১ মে আবার ৬৩ সদস্যবিশিষ্ট একটি আহ্বায়ক কমিটি করা হয়। এ কমিটিতে অ্যাডভোকেট জামিলুর রশীদ খানকে আহ্বায়ক এবং এস এ কবীর জিন্নাকে সদস্যসচিব করা হয়।
নতুন কমিটির আহ্বায়ক জামিলুর রশীদ খান বলেন, বর্তমানে জেলায় বিএনপির রাজনীতি চলছে ধীরগতিতে। এ কারণে অনেক কর্মসূচি হাতে নিলেও তা বাস্তবায়ন করা যাচ্ছে না। এর ফলে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ছেন দলের নেতাকর্মীরা। তবে এরমধ্যে ওয়ার্ড থেকে শুরু করে ইউনিয়ন, উপজেলা কমিটি করার প্রক্রিয়া চলছে। আশা করছি অল্প সময়ের মধ্যে এসব কমিটি হওয়ার পর জেলা কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হবে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *