দশমিনার এ্যানির পানি গবেষণা সুযোগ লাভ

সারাবাংলা

দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:
ইনস্টিটিউট অব নিউক্লিয়ার সায়ন্স এন্ড টেকনোলজি’র আইসোটপ হাইড্রোলজি বিভাগের কনিষ্ঠ পরীক্ষণ কর্মকর্তা শারমিন সুলতানা (এ্যানি)। নদী মাতৃক বাংলাদেশের পানি গবেষণা পরবর্তী দেশ ও জাতির সেবা আত্মনিয়োগ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলা সদরের আরেফাতুন্নেছা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব আবদুর রহমান’র কনিষ্ঠপুত্র মিজানুর রহমান’র স্ত্রী ও নরসিংদীর পলাশ উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা এ.কে.এম শাহদাৎ হোসেন খান এবং শাহিদা সুলতানা দম্পত্তির জেষ্ঠ্য কন্যা এ্যানি। দাম্পত্ত জীবনে তিনি এক পুত্র সন্তানের জননী। তিনি শিক্ষা জীবনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীভুক্ত ইডেন মহিলা কলেজ থেকে রসায়ন বিএসসি সম্মান ও এমএসসি ডিগ্রি অর্জন করেন। এছাড়া ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে একই বিষয়ে এমএসসি ডিগ্রি অর্জন শেষে মহামান্য রাষ্ট্রপতির দেওয়া স্বর্ণপদক ও সম্মাননা লাভ করেন এ্যানি। এরই ধারাবাহিকতায় নিজ কর্মস্থল বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন ও মন্ত্রণালয়ের পূর্বনুমতি নিয়ে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে পিএইচডি গবেষণা প্রোগ্রামে ভর্তির সুযোগ লাভ করেন। তার গবেষণা এ্যাসেসমেন্ট অব ওয়াটার কোয়ালিটি প্যারামিটার অব ফাইভ মেজর রিভার ইন ঢাকা রিজিওন অব বাংলাদেশ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’র রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আব্দুস সালাম তত্ত্বাবধায়ক ও অধ্যাপক ড. মো. সিরাজুল ইসলাম যুগ্ম তত্ত্বাবধায় হিসেবে রয়েছেন।
পানি গবেষক ও আইসোটপ হাইড্রোলজি বিভাগের কনিষ্ঠ পরীক্ষণ কর্মকর্তা শারমিন সুলতানা (এ্যানি) জানায়, পানি গবেষণালব্ধ জ্ঞান নিয়ে কর্মস্থল বাংলাদেশ পরমানু শক্তি কমিশন তথা দেশ ও জাতীর কল্যানে আত্মনিয়োগ করবো।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *