দেশেই করোনার টিকা তৈরির চেষ্টা চলছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

জাতীয়

প্রতিনিধি ( মানিকগঞ্জ) :

মহামারি করোনাভাইরাসের টিকার যে সংকট দেখা দিয়েছে তা কাটাতে দেশেই টিকা তৈরির চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এছাড়া রাশিয়া, চীন ও আমেরিকা থেকেও টিকা আনার চেষ্টা চলছে বলে জানান মন্ত্রী। শনিবার ( ১৫ মে ২০২১) রাতে মানিকগঞ্জের গড়পাড়ায় নিজের বাগানবাড়িতে স্থানীয়দের সঙ্গে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

টিকার সংকট কেটে যাবে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশেই করোনার টিকা তৈরির চেষ্টা চলছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ব্যাপারে আমাদেরকে নির্দেশনা দিয়েছেন। তাছাড়া রাশিয়া, চায়না ও আমেরিকা থেকেও টিকা আনার জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।’

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের কাছ থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তিন কোটি ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা কিনতে গত ৫ নভেম্বর চুক্তি করে বাংলাদেশ। ওই চুক্তি অনুযায়ী, প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ করে ছয় মাসে তিন কোটি ডোজ টিকা পাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের। সে অনুযায়ী জানুয়ারিতে ৫০ লাখ ডোজ দেশে এলেও বিপুল চাহিদা আর বিশ্বজুড়ে টিকার সরবরাহ সংকটের মধ্যে ফেব্রুয়ারির চালানে বাংলাদেশ ২০ লাখ ডোজ হাতে পায়। এছাড়া ভারত সরকারের উপহার হিসেবে দুই দফায় ৩২ লাখ ডোজ টিকা পাওয়া গেছে। সব মিলিয়ে টিকা এসেছে এক কোটি দুই লাখ ডোজ। ভারত থেকে আর টিকা পাওয়ার সম্ভাবনা দেখছে না সরকার। এজন্য বিকল্প উপায়ে টিকা ব্যবস্থার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। ইতিমধ্যে চীনের দেয়া উপহারের পাঁচ লাখ টিকা দেশে পৌঁছেছে।

করোনা পরিস্থিতি এখনো নিয়ন্ত্রণে আছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘ঈদের আগে মানুষ যেভাবে ঢাকা ছেড়েছে, ঈদের শপিং করেছে, তাতে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার আশংকা করেছিলাম। কিন্তু সেবা প্রতিষ্ঠানগুলোর আন্তরিক চেষ্টা এবং জনগণের মাস্ক পরার প্রবণতা বৃদ্ধির ফলে এখনো করোনা পরিস্থিতি অনেকটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।’করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে সরকারের প্রস্তুতির কথা জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, ‘করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য সারাদেশে এখন ১৩ হাজার বেড রয়েছে। এরমধ্যে প্রায় ১০ হাজারের বেশি বেড খালি রয়েছে।’বর্তমানে আমেরিকা, ইউরোপ, ভারতসহ উন্নত দেশগুলোর চেয়ে বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি অনেকটা ভালো বলে দাবি করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফসার উদ্দিনের সঞ্চালনায় ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস, পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম, জেলা সিভিল সার্জন আনোয়ারুল আমিন আখন্দ, কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ মো. জাকির হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মহীউদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম, মানিকগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. রমজান আলী, জেলা আওয়ামী গের সহ-সভাপতি আব্দুল মজিদ ফটো, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুলতানুল আজম খান আপেল, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

 

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *