দেড় বছর পর বেনাপোল বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি

সারাবাংলা

ডেস্ক রিপোর্ট:
দেড় বছর পর বেনাপোল বন্দর দিয়ে আবারও আমদানি করা হয়েছে ভারতীয় পেঁয়াজ। বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) রাত ৮টার দিকে ভারতের পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে প্রায় সাড়ে ৪২ মেট্রিক টন পেঁয়াজবাহী দুটি ট্রাক বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করে। এর আগে উৎপাদন সংকট দেখিয়ে ও মূল্য বৃদ্ধি করে ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার। এরপর ভারত নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলেও বেনাপোল দিয়ে আর পেঁয়াজ আনেননি ব্যবসায়ীরা। বৃহস্পতিবার আসা পেঁয়াজের বাংলাদেশি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান যশোরের দীন ইসলাম ট্রেডার্স। কাস্টমস ও বন্দরের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে পেঁয়াজ ছাড় করাতে আমদানিকারককে সহযোগিতা করেছেন সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট সেঁজুতি এন্টারপ্রাইজ। আমদানিকারক দীন ইসলাম বলেন, প্রতি মেট্রিকটন পেঁয়াজের আমদানিমূল্য পড়েছে ১৪০ মার্কিন ডলার। পণ্যছাড় করাতে সরকারকে আমদানি মূল্যের ওপর ১০ শতাংশ শুল্ককর পরিশোধ করতে হচ্ছে। বেনাপোল আমদানি-রফতানি সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল হক বলেন, ‘ভারত সরকার পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দেওয়ার পর প্রথম দিকে দেশের অন্যান্য বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি হলেও এতদিন বেনাপোল বন্দর দিয়ে কোনো পেঁয়াজ আমদানি হয়নি। এতে বাজারে পেঁয়াজের মূল্য যে পরিমাণে কমার কথা ছিল তা কমেনি। বর্তমানে এ পথে পেঁয়াজ আমদানি হলে দাম কমে আসবে বলে আশা করছেন ব্যবসায়ীরা।’ বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবির তরফদার বলেন, ‘আমদানিকৃত পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা যাতে দ্রুত খালাস নিতে পারেন তার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *