দৌলতদিয়া ফেরিঘাট পারাপারের অপেক্ষায় সহস্রাধিক গাড়ি

সারাবাংলা

রনি মন্ডল, গোয়ালন্দ থেকে
রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে পদ্মা নদীতে তীব্র স্রোত ও ফেরি স্বল্পতায় যানবাহন পারাপারে দ্বিগুণ সময় লাগছে। ফলে দৌলতদিয়া প্রান্তে সহস্রাধিক পণ্যবাহী ট্রাকসহ যাত্রীবাহী বাস পারের অপেক্ষায় আটকে রয়েছে। এ ছাড়া বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় প্রতিনিয়ত ঘাট এলাকায় তৈরি হচ্ছে পণ্যবাহী যানবাহনের লম্বা সারি। প্রতিটি পণ্যবাহী যানবাহনকে ফেরি পেতে অপেক্ষা করতে হচ্ছে ২ থেকে ৩ দিন পর্যন্ত। রোববার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দৌলতদিয়া ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ সময় সংলগ্ন বাংলাদেশ হ্যাচার পর্যন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার এলাকায় প্রায় ৫ শতাধিক যাত্রীবাহী বাস ও পণ্যবাহী ট্রাকের দীর্ঘ সারি সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া একই ভাবে ঘাট থেকে প্রায় ১৪ কিলোমিটার দূরে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের গোয়ালন্দ মোড় থেকে আহলাদিপুর বাজার পর্যন্ত ৫ শতাধিক অপচনশীল পণ্যবাহী ট্রাক সারিতে আটকে রাখা হয়েছে। তবে এ সময় বাস ও কাঁচামাল বোঝাই ট্রাকগুলোকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পার হতে দেখা যায়। ঝিনাইদহ থেকে ছেড়ে আসা পণ্যবাহী ট্রাক চালক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, গোয়ালন্দ মোড়ে দিয়ে তিন দিন অপেক্ষার পরে আজ ঘাটে এসেও সিরিয়ালে আটকে আছি। এখনো ফেরির দেখা পেলাম না। আমার সামনে প্রায় ৩ শতাধিক যানবাহন রয়েছে। কখন ফেরির দেখা পাবো বুঝতে পারছি না। এদিকে মোড়ে খোলা সড়কে রাত কাটাতে নানা ধরনের বিড়ম্বনার সম্মুখিন হতে হয়। খাবার, জল ও শৌচাগারের জন্য বেশি সমস্যায় পড়েছিলাম। জেলা ট্রাফিক পুলিশ ইন্সেপেক্টর (টিআই) তারক চন্দ্র পাল বলেন, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে পদ্মা-যমুনার জল বৃদ্ধি পেয়ে তীব্র স্রোতের সৃষ্টি হচ্ছে। যে কারণে প্রচন্ড স্রোতের বিপরীতে নৌরুটের ফেরিগুলোর স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এতে করে ফেরি চলাচলে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে দ্বিগুণ সময় লাগায় যানবাহনের সিরিয়াল সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ট্রাফিক পারিন্টেন্ডেন্ট শওকত আলী বলেন, বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় দৌলতদিয়া প্রান্তে যাবাহনের চাপ বেড়ে যাওয়ায় ঘাটে যানবাহনের সারি সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমান এ নৌরুটে ছোটবড় ১৪টি ফেরি চলাচল করছে। তবে দূর্ভোগ কমাতে যাত্রীবাহি যানবাহন ও কাঁচামালের ট্রাকগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *